আজ বৃহস্পতিবার , ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার জনগণের অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত বিএনপি রাজপথে থাকবে-প্রিন্স ডামি নির্বাচন করে গণতন্ত্রকে আইসিইউতে পাঠিয়েছে আওয়ামী লীগ-প্রিন্স বাজারে পণ্যের অগ্নিমূল্যের তাপ তাদের গায়ে লাগেনা-প্রিন্স নালিতাবাড়ীতে প্রেসক্লাবের নির্বাচন, সভাপতি সোহেল সম্পাদক মনির গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে-বিএনপি নেতা প্রিন্স হালুয়াঘাটে বিএনপি নেতা প্রিন্স’র লিফলেট বিতরণ ৯৮ দিন কারাভোগের পর নিজ এলাকায় বিএনপি নেতা প্রিন্সকে সংবর্ধনা

নালিতাবাড়ীতে মাছ ধরা উৎসব

প্রকাশিতঃ ১১:০০ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ২৩, ২০২২ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১১৪ বার

নালিতাবাড়ী সংবাদদাতাঃ শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার খরস্রোতা ভোগাই নদীতে গ্রাম বাংলার প্রাচীন ঐতিহ্য মাছ ধরা বাউত উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার (২৩ অক্টোবর) সকালে উপজেলার নাকুগাঁও স্থলবন্দর এলাকার ভোগাই নদীতে দলবেঁধে বাউত উৎসবে নামেন সৌখিন মৎস শিকারীরা।

জানা গেছে, বর্ষা মৌসুম শেষে অক্টোবর নভেম্বর মাস এলে খাল বিল নদনদীর পানি কমে যায়। এসময় সৌখিন গ্রামবাসীরা মিলে পলো, ঝাঁকিজাল, ছিপজাল, ঠেলাজাল, লাঠি ও বিভিন্ন ফাঁদ নিয়ে দলবেঁধে জলাশয়ে মাছ ধরতে বাউত উৎসবে মেতে উঠেন। রবিবার উপজেলার পাঁচগাও, রাজানগর, দোহালিয়া, সন্নাসীভিটা ও কোন্নগর গ্রামের প্রায় দুই শতাধিক মৎস্য শিকারী নাকুগাঁও স্থলবন্দর এলাকার চারআলী ব্রীজপাড় থেকে বাউত উৎসবে নামেন। পরে প্রায় ৬ কিলোমিটার নদীর ভাটীতে দিনব্যাপী মাছ শিকার করেন। শিকারীরা জানান তারা আগে থেকেই নির্ধারন করেন কবে তারা বাউত উৎসব করবেন।

উৎসবে অংশগ্রহণকারী উপজেলার পাঁচগাও গ্রামের আহাম্মদ আলী তিনি ৮ কেজি ওজনের একটি আইড় মাছ শিকার করেছেন। তিনি বলেন, প্রতিবছর আমরা ৪/৫ গ্রামের শিকারী মিলে নিজেদের তৈরি পলো ও জাল নিয়ে জেলার ভোগাই নদী, চেল্লাখালী নদী, মহারশি নদী, মালিঝিকান্দা নদী ও ধলী বিলে আশ্বিন কার্তিক মাসে দলবেঁধে বাউত উৎসবে অংশগ্রহণ করেন। এতে কেউ মাছ শিকার না করতে পারলেও বেশ আনন্দ উপভোগ করেন।এ বিষয়ে নালিতাবাড়ী উপজেলা মৎস কর্মকর্তা এমদাদুল হক বলেন, গ্রাম বাংলার প্রাচীন ঐতিহ্য বাউত উৎসবে দলবেঁধে মাছ শিকার করার কোন আইন নেই। এ জাতীয় কোন উৎসব করতে হলে প্রশাসনের পুর্ব অনুমতি নিতে হবে। তাছাড়া এভাবে মাছ শিকার করলে দেশীয় জাতের মাছের বংশ বিস্তার ও প্রজননে সমস্যা হতে পারে।

Shares