আজ শুক্রবার , ১২ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

নালিতাবাড়ীতে কৃষি মেলার উদ্ভোধন ইকোপার্কে বেড়াতে গিয়ে খালু কর্তৃক ভাগ্নী ধর্ষণের শিকার শ্রীবর্দীতে পানিতে ডুবে প্রতিবন্ধী শিশুর মৃত্যু মেয়ের খুনের বিচার চাইলেন বাবা বাউফলে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নালিতাবাড়ীতে বন্য হাতির আক্রমণে কৃষকের মৃত্যু দাশপাড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি আজম, সম্পাদক মজিবর নালিতাবাড়ীর নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর নিখোঁজ শিক্ষার্থী উদ্ধার নালিতাবাড়ীতে গণহত্যা দিবস পালিত দলিল প্রতি অতিরিক্ত ফি ১০ হাজার টাকা। প্রতিবাদে ধোবাউড়ায় সংবাদ সম্মেলন রামচন্দ্রকুড়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণায় বাঁধা: সংঘর্ষ, গাড়ি ভাংচুর, আহত হালুয়াঘাটে গাছের সাথে শত্রুতা হালুয়াঘাটে আরও ২৯ জন ভূমিহীনকে জমিসহ ঘর প্রদান ময়মনসিংহে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা, স্বামী আটক। প্রধান মন্ত্রীর উপহার চান ভাগ্য বিড়ম্বিত বিধবা রেনুবালা!

হালুয়াঘাটের প্রতিবন্ধী ‘অতুলা’ রাস্তার পাশেই কাটালেন ৩৫টি বৎসর

প্রকাশিতঃ ১১:৪১ অপরাহ্ণ | জুন ২০, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২৮২ বার

ওমর ফারুক সুমন : স্বপ্নবিহীন শারিরীক প্রতিবন্ধী অতুলা খাতুন রাস্তার পাশেই বসে কাটিয়ে দিলেন ৩৫ টি বৎসর। হালুয়াঘাট উপজেলার আশ্রমপাড়া গ্রামেই তার ঠিকানা।বাবা হযরত আলি দিনমজুরের কাজ করেন। মা থেকেও নেই। অভাব গ্রাস করে রেখেছে চারিদিকে। দুই ভাই দুই বোনের মাঝে অতুলা সবার বড়। অতুলার বয়স আনুমানিক ৪৫ বছর হবে। অতুলার সাথে কথা বললে তিনি জানান, তার জীবনে কোন স্বপ্ন নেই। তিনি আর কখনো স্বপ্ন দেখতে চাননা। রাস্তাই তার স্বপ্ন,রাস্তাই তার সব। রাস্তার পাশেই ঘিরে রয়েছে তার জীবন, সান্নিধ্য ও সকল ভালোবাসা। প্রতিদিন রাস্তার পাশেই বসে থাকেন স্বপ্নবিহীন শারিরীক প্রতিবন্ধী অতুলা খাতুন নামের এই হতভাগ্য নারী।  রাস্তার উপড় দিয়ে পথচলা হাজারো পথিকের দর্শন ছাড়া তেমন আর কিছু তাকে স্পর্শ করতে পারেনা। কেউ যদি খুশি হয়ে দু’চারটা টাকা দেয় সেটাই তিনি খুশি মনে গ্রহণ করেন। বাড়ির সামনে হাইওয়ে রাস্তাই তার একমাত্র স্বপ্ন। ঘুম থেকে ওঠেই হামাগুড়ি দিয়ে কোনমতে চলে আসেন রাস্তার ধারে। একটুকরো কাপড় আর আরেকটি বসার জন্যে কাঠের পিঁড়িই হচ্ছে তার স্বপ্ন দেখার একমাত্র হাতিয়ার। জীবনের সব সুখ তার জীবন থেকে হারিয়ে রাস্তার দ্বারে বসে কাটিয়েছেন জীবনের মুল্যবান সময়টুকু। রাস্তা দিয়ে যখন শত শত পথিক তাকে অতিক্রম করে তখন অতুলা ফেঁল ফেঁল করে তাকিয়ে থাকে। কি যেন বলতে চায়। কিন্তু কে শুনে তার কথা। কারো যদি একটু সহানুভূতি জাগে দু’চার টাকা দিয়ে পথ মাপে। শেরপুরের লতিফ নামে একলোকের সাথে তার বিয়ে হয়েছিলো। বিয়ে হলেও খেলাঘরের মত ভেঙে যায় বলে জানান অতুলা খাতুন। এখন আর কোন স্বপ্ন দেখতে চাননা তিনি। তার ধারনা বিধাতা তাকে স্বপ্ন দেখার জন্যে সৃষ্টি করেনি। স্বপ্নের কথা জিজ্ঞেস করলে চোখের কোনে জল এসে যায় তার। ###

ওমর ফারুক সুমন

হালুয়াঘাট (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

মোবাইলঃ০১৭২৯-৭১৬০১৪

তারিখঃ ২১-০৬-১৮

 

Shares