আজ মঙ্গলবার , ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

কোভিড-১৯ প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে মেয়রের আহব্বান বাউফলে তারেক রহমানের জন্মবার্ষিকী পালিত বাউফলে প্রায়তঃ শিক্ষকের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া-মোনাজাত আত্মহত্যার পরও সূদের টাকার জন্য ফোন! ত্রিশালে সড়ক দূরঘটনায় একজন নিহত চার জন আহত ত্রিশালে যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত আমতলীতে মাদ্রাসা মাঠে ধান চাষ বরগুনায় ১০ দোকান পুড়ে ছাই হৃদয় হত্যাকাণ্ডে জড়িত প্রত্যেকের ফাঁসি চান পরিবার আইপিএলে ,নিঃস্ব হচ্ছে অনেক পরিবার ত্রিশাল অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্যোগে শাহ্ আহসান হাবীব বাবুর জন্ম দিন পালন বরগুনায় সেরা সম্পাদককে সংবর্ধনা বরগুনা বেতাগীর আলোচিত বজলু হত্যা মামলার ২ নম্বর আসামি আটক ত্রিশালে শহীদ বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান সড়ক উদ্বোধন ত্রিশালে বিভাগীয় কমিশনারের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

নরসিংদীতে বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১১

প্রকাশিতঃ ১২:১২ পূর্বাহ্ণ | আগস্ট ২১, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৬৯ বার

অনলাইন ডেস্কঃ নরসিংদীতে যাত্রীবাহী বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে চালকসহ ১১ যাত্রী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ১১ জন যাত্রী। সোমবার রাত ৯টার দিকে নরসিংদী ও ভৈরব সীমান্তবর্তী এলাকা ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বেলাব উপজেলার দড়িকান্দি নামক স্থানে এই দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের ভৈরব ও নরসিংদীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহতদের মধ্যে পাঁচজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন- সুনামগঞ্জের আজমিরীগঞ্জের আবুল হোসেন (৩০), আবদুল মিয়া (২৪), মোবারক মিয়া (১৮), সুজন মিয়া (২২) ও তার স্ত্রী রাহেলা বেগম (২০)।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মহাসড়কের দড়িকান্দি বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ঢাকাগামী বস পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে সুনামগঞ্জগামী একটি রিজার্ভ লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে লেগুনাটি ধুমড়ে-মুচড়ে যায়। দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই লেগুনার আট যাত্রী নিহত হন। আহত হয় অন্তত ১০ জন।

আহতদের উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী ভৈরব ও নরসিংদীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে ভৈরব স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুইজনের মৃত্যু হয়। নরসিংদী জেলা হাসপাতালে আনার পর মারা যান একজন।

দুর্ঘটনার পরপর পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুনসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। একইসঙ্গে আহতদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।

এদিকে, দুর্ঘটনার পর মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে ভৈরব হাইওয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মহাসড়ক থেকে দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ি দুটি সরিয়ে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

ভৈরব হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তৈফিকুর ইসলাম জানান, দুর্ঘটনায় মাইক্রোবাসের চালকসহ ১১ জন নিহত হয়েছেন। তবে যাত্রীবাহী বাসের চালক পালিয়ে গেছেন। দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ি দুটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন বলেন, দুইটি গাড়িই দ্রুতগতিতে আসছিল। এখানে কোনো জ্যাম ছিল না। ওভারস্পিডের কারণেই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে আমরা প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি।

বিডি প্রতিদিন/২০ আগস্ট ২০১৮/আরাফাত

Shares