আজ বুধবার , ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

এম্বুলেন্সে করে মাদক পাচারকালে ২৪০ বোতল ভারতীয় মদসহ একজন আটক এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার জনগণের অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত বিএনপি রাজপথে থাকবে-প্রিন্স ডামি নির্বাচন করে গণতন্ত্রকে আইসিইউতে পাঠিয়েছে আওয়ামী লীগ-প্রিন্স বাজারে পণ্যের অগ্নিমূল্যের তাপ তাদের গায়ে লাগেনা-প্রিন্স নালিতাবাড়ীতে প্রেসক্লাবের নির্বাচন, সভাপতি সোহেল সম্পাদক মনির গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে-বিএনপি নেতা প্রিন্স হালুয়াঘাটে বিএনপি নেতা প্রিন্স’র লিফলেট বিতরণ

নালিতাবাড়ীতে মাদকাসক্তের হাতে নববধূ নিহত

প্রকাশিতঃ ১০:০৮ পূর্বাহ্ণ | জুন ৩০, ২০২২ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৩১২ বার

মোঃ দৌলত হোসেন নালিতাবাড়ী সংবাদ দাতা, শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে। মেহেদীর রং না মুছতেই মাদকাসক্ত প্রতিবেশি যুবকের দায়ের কোপে রক্তে রঞ্জিত হয়ে মারা গেলেন দিতি নামে আঠারো বছর বয়সী সদ্য বিবাহিতা এক ভাগ্যহত নববধূ। বুধবার (২৯জুন) দিবাগত রাতে শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌর শহরের কালিনগর মহল্লায় এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্বজনেরা জানায়, কালিনগর মহল্লার মৃত আব্দুল হামিদের ছেলে রহুল আমিন (২৫) মাদকাসক্ত। তারই প্রতিবেশি মুছা মিয়ার মেয়ে দিতির গত বৃহস্পতিবার উপজেলার চেল্লাখালী সন্যাসীভিটা এলাকায় খাইরুল নামে এক যুবকের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ে পর দিতিকে পিতার বাড়ি কালিনগর রেখে স্বামী খাইরুল পেশাগত কাজে কর্মস্থল ঢাকায় চলে যায়। বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে নয়টার দিকে ঘাতক রহুল আমিন তার ভাবি রাহেলাকে নিয়ে দিতিদের বাড়িতে যায়। এসময় রাহেলা দিতিকে দরজা খোলতে বললে দিতি দরজা খোলে দেয়। সাথে সাথেই মাদকাসক্ত রহুল আমিন বটি দা নিয়ে দিতির মাথায় সজোরে কোপ সবায়। এতে হতবিহ্বল দিতি চিৎকার দিয়ে ঘরের মেঝেতে লুটিয়ে পড়ে। ফিনকি দিয়ে রক্ত বেরুতে থাকলে তার মা মনোয়ারা চিৎকার করতে থাকেন। এসময় বাড়ির লোকজন দৌড়ে এলে রহুল আমিন পালিয়ে যায়।
পরে স্বজনেরা উদ্ধার করে দিতিকে নালিতাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। ময়মনসিংহ নেওয়ার পথে রাত সাড়ে দশটার দিকে নকলা এলাকায় দিতির মৃত্যু হয়।
এদিকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে এসে ঘাতক রহুল আমিনের ভাবি রাহেলাকে আটক করে রহুল আমিনকে খোঁজতে থাকে। একপর্যায়ে রাত সাড়ে এগারোটার দিকে রহুল আমিন নিজেই পুলিশের কাছে এসে হত্যার কথা স্বীকার করে ধরা দেয়।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ঘটনার তদন্ত চলছিল। মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সহকারী পুলিশ সুপার নালিতাবাড়ী সার্কেল আফরোজা নাজনীন ও ওসি বছির আহমেদ বাদল। তবে এখনও পর্যন্ত হত্যাকাণ্ডের কারণ জানা যায়নি।

Shares