আজ সোমবার , ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

ভালুকায় সাংবাদিক নিগ্রহের বিচার দাবিতে মানববন্ধন রিফাত হত্যা রায় ৩০ সেপ্টেম্বর ! মিন্নির সাজা হবে কি? টাংগাইল সদরের (বুরো এনজিও) কর্মকর্তা খুন। মতলব উত্তরে আধুনিক প্রযুক্তিতে বীজ উৎপাদন সংরক্ষনে মাঠ দিবস অনুষ্টিত টাংগাইলে জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান লিটন কে কুপিয়ে হত্যা চেস্টা। টাংগাইলে চতুর্থ শ্রেণির (১০) এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা। রাঙ্গাবালীতে বিয়ের প্রতিশ্রæতিতে প্রতারণার অভিযোগ, চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হালুয়াঘাটে বিজিবি’র পিটুনিতে আহত-১ প্রশ্নবিদ্ধ টি.এইচ.ও ডা. সোহেলী শারমিন! কোটি টাকার দূর্ণীতির নেপথ্যে–? হালুয়াঘাটে নারী সোর্স সুমিসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীর অভিযোগ বাউফলে এক ব্যক্তির চোখ উৎপাটন হালুয়াঘাটে সুমী’র অপকর্ম ফাঁস! প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ ২৪ ঘণ্টায় আরো ৪১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৮২৭ রূপগঞ্জ প্রেসক্লাবের স্বঘোষিত সভাপতির হুমকিতে ৫ সাংবাদিক এলাকাছাড়া করোনায় আরও ৩৬ জনের মৃত্যু

ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে রোগীকে ধর্ষণ

প্রকাশিতঃ ৪:৪৮ অপরাহ্ণ | জুন ১৭, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৫৫ বার

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারতের গুজরাটে এক নারী রোগীকে ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগে পলাতক এক চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ভাদোদারা জেলার নাদেসারি এলাকার আনগাধ গ্রামে রোগিনীকে নিজের ক্লিনিকের মধ্যেই ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে।

নাদেসারি পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্ত চিকিৎসকের নাম প্রতীক জোশি। শনিবার পঞ্চমহল এলাকায় এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে দুপুরে তাকে আটক করে পুলিশ।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, গত ১১ জুন ওই নারী প্রতীক জোশির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

ওই নারীর দাবি, ক্লিনিকে ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন ওই চিকিৎসক। সেই সময় ওই ক্লিনিকের কম্পাউন্ডার তার ফোনে ভিডিও করছিলেন বলে দাবি করেন তিনি। অভিযোগ পেয়ে সেদিন রাতেই দিলীপ গোহিল নামে ওই কম্পাউন্ডারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

যদিও ঘটনার দিন থেকেই পলাতক ছিলেন অভিযুক্ত চিকিৎসক। তার বিরুদ্ধে ৩৭৬ ধারায় ধর্ষণসহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। খুব শিগগির তাকে আদালতে পেশ করা হবে।

পুলিশি জেরায় ওই চিকিৎসকের দাবি, ধর্ষণের ঘটনাটি তিন মাস আগেকার। গ্রেপ্তারকৃত কম্পাউন্ডার ও তার দুই সঙ্গী মিলে ওই চিকিৎসককে ব্ল্যাকমেল করা শুরু করেছিল। গত ২২ ফেব্রুয়ারি তাকে অপহরণ করে ৫০ লাখ টাকা দাবি করা হয়।

পুলিশ আলাদা করে অপহরণ ও ব্ল্যাকমেলের ঘটনারও তদন্ত শুরু করেছে। যদিও আরও দুই অভিযুক্ত মহেন্দ্র ও বিক্রম গোহিলকে এখনও ধরতে পারেননি তদন্তকারীরা।

Shares