আজ সোমবার , ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাচনে মোশারফ, ফরিদ, আশুরা বিজয়ী গরীবের আশার বাতিঘর হাজী মোশারফ হালুয়াঘাটে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি পুঁততে গিয়ে মৃত্যু-১, আহত-১ জাতীয় ভাবে”স্বপ্নজয়ী মা” নির্বাচিত হলেন জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জের অবিরণ নেছা ৬১০৮ ভোটের ব্যবধানে হামিদ বিজয়ী। শেখ রাসেল ও মনোয়ারা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হালুয়াঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনঃ প্রবীণে প্রবীণে লড়াই এম্বুলেন্সে করে মাদক পাচারকালে ২৪০ বোতল ভারতীয় মদসহ একজন আটক এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার

হালুয়াঘাটে জাল দলিলে পাহাড়ী কাষ্ঠল উদ্ভিদের বাগান দখল

প্রকাশিতঃ ৬:১৯ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৪০১ বার

স্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার ১নং ভূবনকুড়া ইউনিয়নে রঙ্গমপাড়া মৌজায় ৮৬ দাগের ৩৩নং খতিয়ানের ৫০ শতাংশ কাষ্ঠল উদ্ভিদের বাগান জাল দলিল সম্পাদন করে দখল করে নিয়ে যায় আশ্রফ আলীসহ একটি অসাধু চক্র। একইসাথে উক্ত জমিটি সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের নায়েব আবুল বাশার ও সার্ভেয়ার আনোয়ার হোসেনের যোগসাজসে আশ্রফ আলীর মাতা আয়তন নেছার নামে খারিজও করে নেয় বলে জানা যায়। পরে এই জমির ২৫ বছর যাবৎ দখলকৃত মালিক হানিফ মোহাম্মদ সাকের উল্লাহ অসাধু চক্রটির সৃজনকৃত দলিলটি ময়মনসিংহের রেজিঃ মহা হাফেজ খানায় তল্লাশি দিয়ে জানতে পারে যে, আয়তননেছা নামে কোন দলিল নেই।তারা ভুঁয়া দলিল (যার নং ৩৭৮০) সম্পাদন করে ভূমিটি দখল করেছেন।
এ বিষয়ে ভূমির প্রকৃত মালিক হানিফ মোহাম্মদ সাকের উল্লাহ বলেন, এরা ৩৭৮০ নাম্বারের একটি ভুঁয়া দলিল সম্পাদন করে ৫০ শতাংশ কাঠের বাগানসহ জমি দখল করে নেয়। বাগানের সকল গাছ কেটে ফেলে। তিনি আরও বলেন, এই নাম্বারে কোন দলিল সম্পাদন হয়নি। এটি একটি ভুঁয়া দলিল। একটি জাল দলিল সম্পাদন কারী চক্রই রয়েছে যাদের কাজ হচ্ছে অবৈধভাবে টাকার বিনীময়ে দলিল তৈরি করে দেয়া। তিনি এদের বিরুদ্ধে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবরে খারিজ বাতিলের আবেদন করেছেন বলে জানান। অবৈধ দখলকারী আশ্রফ আলী বলেন, আমি জামগড়া গ্রামের মান্নান মৌলবীকে ১৪ হাজার টাকা দিয়েছি। সে জমির দলিলটি করে দেয়। সেই জমির প্রকৃত মালিক বলে দাবী করেন।পরে মান্নান মৌলবীর কাছে জানতে চাইলে তিনি আশ্রাফ আলীকে দলিল করে দিতে সহযোগীতা করেছেন বলে স্বীকার করেন। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট নায়েব আবুল বাশারের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি কথা বলতে রাজী হননি। সার্ভেয়ার আনোয়ার হোসেন বলেন, সংশ্লিষ্ট নায়েবের ক্লিয়ারেন্স পাওয়ার পরই আমি অনুমোদন দিয়েছি। যদি অনিয়ম কিছু হয়ে থাকে এর জন্যে নায়েবই দায়ী বলে উল্লেখ করেন। পরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) লুৎফুন্নাহার তার কাছে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, ভূমির মালিক হানিফ মোহাম্মদ সাকের উল্লাহ খারিজ বাতিলের আবেদন করেছেন। তদন্ত চলছে। দলিল ভুঁয়া প্রমানিত হলে খারিজ বাতিল করা হবে।###

Shares