আজ রবিবার , ২২শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

কোভিড-১৯ প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে মেয়রের আহব্বান বাউফলে তারেক রহমানের জন্মবার্ষিকী পালিত বাউফলে প্রায়তঃ শিক্ষকের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া-মোনাজাত আত্মহত্যার পরও সূদের টাকার জন্য ফোন! ত্রিশালে সড়ক দূরঘটনায় একজন নিহত চার জন আহত ত্রিশালে যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত আমতলীতে মাদ্রাসা মাঠে ধান চাষ বরগুনায় ১০ দোকান পুড়ে ছাই হৃদয় হত্যাকাণ্ডে জড়িত প্রত্যেকের ফাঁসি চান পরিবার আইপিএলে ,নিঃস্ব হচ্ছে অনেক পরিবার ত্রিশাল অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্যোগে শাহ্ আহসান হাবীব বাবুর জন্ম দিন পালন বরগুনায় সেরা সম্পাদককে সংবর্ধনা বরগুনা বেতাগীর আলোচিত বজলু হত্যা মামলার ২ নম্বর আসামি আটক ত্রিশালে শহীদ বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান সড়ক উদ্বোধন ত্রিশালে বিভাগীয় কমিশনারের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

হালুয়াঘাটে সেভেন আপের কার্টোনে মেয়াদোত্তীর্ণ মাল! অভিনব কায়দায় প্রতারণা

প্রকাশিতঃ ১০:১৭ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১২, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১,৩২০ বার

স্টাফ রিপোর্টারঃ হালুয়াঘাট উপজেলার ধারা বাজারে সেভেন আপের কেসের ভিতর মেয়াদোত্তীর্ণ সেভেন আপের বোতল (৫০০ মিলি) পাওয়া গেছে বলে অভিযোগ করেছেন মোতালেব ফকির নামে এক মোদী ব্যবসায়ী।শনিবার সন্ধাই পরিবেশক সৈয়দুজ্জামানের ডিএসআর হানিফ (২৪) ও রায়হান (১৮) ঈদকে সামনে রেখে উক্ত ব্যবসায়ীর দোকানে তিন কেস (৭২ বোতল) সেভেন আপ বিক্রি করতে যান। মোতালেবের সাথে কথা বললে তিনি জানান,  কেস একপাশে খোলা দেখে তার সন্দেহ হয়।পরে ভিতর থেকে প্রতি কিট থেকে ৩টি করে  মোট ৯টি মেয়াদোত্তীর্ণ সেভেন আপের বোতল খুঁজে পান। যার তারিখ গুলো ঘষে তুলে ফেলা হয়েছে বলে জানান অভিযোগকারী দোকানদার। এই খবর তৎক্ষনাৎ পুরো বাজারে ছড়িয়ে পড়লে পরিবেশক লোক পাঠিয়ে মেয়াদোত্তীর্ণ মালগুলো ফেরত নিয়ে যান। এই বিষয়ে আশপাশের অন্যান্য দোকানদারগণ অভিযোগ করে বলেন, ঈদকে সামনে রেখে মেয়াদোত্তীর্ণ যত মাল রয়েছে সবগুলো মাল অভিনব কায়দায় কেসের ভিতর ঢুকিয়ে বাজারজাত করছেন পরিবেশক সৈয়দুজ্জামান। এ নিয়ে ব্যবসায়ীরা চরমভাবে ক্ষুব্ধ হয়েছেন বলে অভিযোগ করেন তারা। এ বিষয়ে পরিবেশক সৈয়দুজ্জামানের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, বরাবরের মতো এসআর হানিফ ও রায়হান মাল নিয়ে বিতরণ করতে যান। এ মেয়াদোত্তীর্ণ মাল কেসের ভিতরে কেমনে প্রবেশ করলো তার ব্যাক্ষা তিনি দিতে পারেননি। পরে ডিএসআর রায়হানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা শুধু বিতরণ করি। আমাদেরকে ডিলার যেইভাবে দেয় সেইভাবেই দোকানে গিয়ে দিয়ে আসি। আমরা কিছুই জানিনা।

(ছবিতে অভিযোগকারী  দোকানদার মোতালেব ফকির)

Shares