আজ সোমবার , ৮ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

হালুয়াঘাটে যথাযোগ্য মর্যাদায় ৭ই মার্চ উদযাপন হালুয়াঘাটের মামুন বাফুফে’র ক্যাপ্টেন নির্বাচিত হওয়ায় সংবর্ধনা ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে পৃথক স্থানে ট্রেনে কাটা পড়ে ২জন নিহত এমপি’র পক্ষে হালুয়াঘাট ধান্য ব্যবসায়ী সমিতির কম্বল বিতরণ ধোবাউড়ায় ট্রাক-হোন্ডা সংঘর্ষে নিহত-২, চালক ও হেলপার আটক বাউফলে ইউপি চেয়ারম্যানের ওপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবি হালুয়াঘাটে ঝরে পড়া শিশুরা পাবে শিক্ষার সুযোগ। আসছে শিক্ষক নিয়োগও হালুয়াঘাটে স্বামীর আত্নহত্যা দেখে স্ত্রীও বিষ খায়! দুজনেরই মৃত্যু হালুয়াঘাটে স্বামী-স্ত্রীর আত্নহত্যা রাহেলা হযরত মডেল স্কুলে প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত ত্রিশাল অনলাইন প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে ভাষা শহীদদের স্মরণে শ্রদ্ধাঞ্জলি ভাষা শহীদদের প্রতি কংশ টিভির পরিবার ও গণমাধ্যম কর্মীদের শ্রদ্ধাঞ্জলী ফুটবল ফাইনাল টুর্নামেন্টে বিজয়ী মধুপুর একাদশ স্পোটিং ক্লাব ২৮ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ময়মনসিংহ জেলার শ্রেষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ত্রিশালের মোস্তাফিজুর রহমান

হালুয়াঘাটে সেভেন আপের কার্টোনে মেয়াদোত্তীর্ণ মাল! অভিনব কায়দায় প্রতারণা

প্রকাশিতঃ ১০:১৭ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১২, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১,৩৫২ বার

স্টাফ রিপোর্টারঃ হালুয়াঘাট উপজেলার ধারা বাজারে সেভেন আপের কেসের ভিতর মেয়াদোত্তীর্ণ সেভেন আপের বোতল (৫০০ মিলি) পাওয়া গেছে বলে অভিযোগ করেছেন মোতালেব ফকির নামে এক মোদী ব্যবসায়ী।শনিবার সন্ধাই পরিবেশক সৈয়দুজ্জামানের ডিএসআর হানিফ (২৪) ও রায়হান (১৮) ঈদকে সামনে রেখে উক্ত ব্যবসায়ীর দোকানে তিন কেস (৭২ বোতল) সেভেন আপ বিক্রি করতে যান। মোতালেবের সাথে কথা বললে তিনি জানান,  কেস একপাশে খোলা দেখে তার সন্দেহ হয়।পরে ভিতর থেকে প্রতি কিট থেকে ৩টি করে  মোট ৯টি মেয়াদোত্তীর্ণ সেভেন আপের বোতল খুঁজে পান। যার তারিখ গুলো ঘষে তুলে ফেলা হয়েছে বলে জানান অভিযোগকারী দোকানদার। এই খবর তৎক্ষনাৎ পুরো বাজারে ছড়িয়ে পড়লে পরিবেশক লোক পাঠিয়ে মেয়াদোত্তীর্ণ মালগুলো ফেরত নিয়ে যান। এই বিষয়ে আশপাশের অন্যান্য দোকানদারগণ অভিযোগ করে বলেন, ঈদকে সামনে রেখে মেয়াদোত্তীর্ণ যত মাল রয়েছে সবগুলো মাল অভিনব কায়দায় কেসের ভিতর ঢুকিয়ে বাজারজাত করছেন পরিবেশক সৈয়দুজ্জামান। এ নিয়ে ব্যবসায়ীরা চরমভাবে ক্ষুব্ধ হয়েছেন বলে অভিযোগ করেন তারা। এ বিষয়ে পরিবেশক সৈয়দুজ্জামানের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, বরাবরের মতো এসআর হানিফ ও রায়হান মাল নিয়ে বিতরণ করতে যান। এ মেয়াদোত্তীর্ণ মাল কেসের ভিতরে কেমনে প্রবেশ করলো তার ব্যাক্ষা তিনি দিতে পারেননি। পরে ডিএসআর রায়হানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা শুধু বিতরণ করি। আমাদেরকে ডিলার যেইভাবে দেয় সেইভাবেই দোকানে গিয়ে দিয়ে আসি। আমরা কিছুই জানিনা।

(ছবিতে অভিযোগকারী  দোকানদার মোতালেব ফকির)

Shares