আজ বুধবার , ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

বাউফলে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ বাউফল উপজেলা ও পৌর সেচ্ছাসেবক দলের আহব্বায়ক কমিটি ঘোষণা বাউফলে ইউএনও’র বিদায়ী সংবর্ধনা নালিতাবাড়ীতে জেলা শিক্ষা অফিসারের বিদ্যালয় পরিদর্শন বাউফলে বিএনপি’র ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত বাউফলে ছেলের বিচার চেয়ে বাবা মায়ের সাংবাদিক সম্মেলন বাউফলে জাতীয় মৎস সপ্তাহ শুরু হালুয়াঘাটে বজ্রপাতে মৃত্যু! বাবার লাশের পাশে দেড় বছরের শিশু ‘নুসাইবা’ হালুয়াঘাটে নির্মাণের বছরেই বক্স কালভার্ট ধ্বস! বাউফলে বিএনপি’র চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া-মোনাজাত ভিক্ষের টাকা গণনা করছিলো ভিক্ষুক। ইমাম বাসের চাপায় মৃত্যু ঐ ভিক্ষুকের শোক দিবসে হালুয়াঘাটে বিজিবি’র ত্রাণ বিতরণ বাউফলে সফিউল বারী বাবু’র মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া-মোনাজাত করোনা টেস্ট করাতে অনিহা হালুয়াঘাটে করোনায় আক্তান্ত হয়ে ৯৬ বছরের বৃদ্ধের মৃত্যু। মোট মৃত্যু-৭

হালুয়াঘাট-ফুলপুর সড়কের বেহালদশা। রাস্তা লক্কর ঝক্কর, গাড়ি চলে হেলে দোলে।

প্রকাশিতঃ ৫:০৪ অপরাহ্ণ | মে ৩১, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২৫৫ বার

ওমর ফারুক সুমন, হালুয়াঘাট: রাস্তা লক্কর ঝক্কর, গাড়ি চলে হেলে দোলে। দুর্ভোগ চড়মে। গাড়িতে বসে থাকা মুশকিল। একবার এই রাস্তায় গেলে জীবন আসে আর যায়। এই বুঝি গাড়ী উলটে গেলরে। পেটের ভাত পর্যন্ত বের হয়ে যেতে চাই। বছরের পর বছর ধরে চলছে এই দুর্ভোগ। হালুয়াঘাট-ফুলপুর মহাসড়কের রাস্তা পিচ উঠে গিয়ে লাখো গর্তে পরিনত হয়েছে। নিন্ম মানের কাজ করায় রাস্তাটি সাবেক অবস্থায় ফিরে এসে জনগণের ভোগান্তি আরও বাড়িয়ে তুলেছে। ভেঙ্গে পড়েছে ফের আবার। গাড়িগুলো চলছে লক্কড়-ঝক্কর করে। মনে হয় এ বুঝি গাড়িটি উল্টে গেল। হালুয়াঘাটের প্রাণকেন্দ্র পুরাতন বাস স্ট্যান্ডের নিরাপদ ডায়াগনোষ্টিক থেকে শুরু এই গর্তের প্রদর্শণী। এখান থেকে নাগলা বাজার পর্যন্ত ৯ কিলোমিটার রাস্তার এমন বেহাল দশা। খানাখন্দে ভরা। কোথাও কোথাও ইটের সুরকি আর বালু দিয়ে গর্ত ভরাট করলেও আবার বৃষ্টি হলেই নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। রাস্তার অর্ধেকের বেশি অংশের পিচ, ইট, পাথরের খোয়া উঠে গেছে। একটু বৃষ্টি হলেই বীভৎস অবস্থার সৃষ্টি হয় রাস্তাজুড়ে। তখন সড়কটি যেন মৃত্যুফাঁদ হয়ে উঠে। রাস্তায় কাদা জমে হাঁটুপানি হয়ে যায়। মাঝে মাঝে ট্রাকের চাকা ডুবে বন্ধ হয়ে যায় যানবাহন চলাচল। ভারি মালবাহী যানবাহন দূরের কথা, রিক্সা আর সিএনজি চালাতেও অনুপযোগী । এলাকাবাসী, পথচারী ও যানবাহন চালকরা জানান, কয়েকটি দুরপাল্লার যানবাহনের স্ট্যান্ড ছাড়াও প্রচুরসংখ্যক ব্যক্তিগত গাড়ি যাতায়াত করে এই সড়কে। এছাড়া শিল্পকারখানার হাজার হাজার মালবাহী যানবাহন প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে। সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, হালুয়াঘাট পৌরসভার পুরাতন বাস স্ট্যান্ড, গাঙ্গিনারপার, দরিনগুয়া, ধারাবাজার, টিকুরিয়া, নাগলা বাজার প্রভৃতি স্থানে এই সড়কের বেহাল দশা মানুষকে অবর্ণনীয় দুর্ভোগে পরিনত করেছে। উপজেলার জনগণের সুবিধার্থে পুনঃ সংস্কারের নামে নির্মিত এ সড়কটি এখন শ্রীহীন। রাস্তাটি পুরো অংশ জুরেই ফের আবার গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। চলাচলের অনুপযোগী । কোথাও দেবে গেছে। কোথাও ভাঙ্গা। কোথাও গর্ত। যা অত্যন্ত বিপজ্জনক। পিচ ভেঙে পুরো রাস্তাটি যেন একটি ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। যেন মৃত্যুগুহা। এ এলাকার মানুষের প্রাণের দাবী হচ্ছে অতি দ্রুত এ রাস্তাটি মেরামত করার। ###

Shares