আজ বৃহস্পতিবার , ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩০শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

ময়মনসিংহের ত্রিশালে সাংবাদিক এনামুল ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া মাহফিল মা দিবসের শুভেচ্ছা ময়মনসিংহের এিশালে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি ও দীর্ঘায়ু কামনায় ইফতার হালুয়াঘাটে আরব আলী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৬ শত মানুষ পেল ঈদ উপহার হালুয়াঘাটে রাস্তার দাবিতে মানববন্ধন মর্ডান স্পোটিং ক্লাবের দোয়া ও ইফতার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা কায়েসের ঈদ উপহার সচেতনতা মুলক স্টিকার ও মাস্ক বিতরণ করলো জনপ্রিয় সেচ্ছাসেবী সংঘঠন ত্রিশাল হেল্পলাইন আজ শফিকুল ইসলাম ভাইয়ের মৃত্যুবার্ষিকী খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় ত্রিশাল ছাত্রদলের পক্ষ থেকে ইফতার বিতরণ হালুয়াঘাটে কৃষকের ধান কাটলেন এমপি হালুয়াঘাটে কর্মহীন মানুষের মাঝে রুবেলে’র খাদ্য সামগ্রী বিতরণ! করোনাঃ মৃত্যুর মিছিলে ১৫৪ চিকিৎসক বাউফলে ডায়রিয়া আক্রান্তদের মাঝে বিনামূল্যে স্যালাইন বিতরণ বাউফলে টাকা চুরি’র ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক যুবককে কুপিয়ে জখম

করোনায় লকডাউন মদের দোকান! যুবকের আত্মহত্যা!

প্রকাশিতঃ ৯:১৫ অপরাহ্ণ | মার্চ ২৭, ২০২০ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৪৪ বার

ভারতেজুড়ে চলছে লকডাউন। সামান্য কিছু জোগাড় করতে কাঠ-খড় পোড়াতে হচ্ছে। এমন অবস্থায় করোনার জেরে কেরালায় মৃত্যু! কিন্তু কোনো আক্রান্ত ব্যক্তির নন, বরং করোনার জেরে লকডাউনে রাজ্যে মদের দোকান বন্ধের নির্দেশে আত্মঘাতী এক যুবক। কুন্নাকুলমের বাসিন্দা সনোজ কুলাঙ্গারার (৩৮) ঝুলন্ত দেহ শুক্রবার তার ঘর থেকে উদ্ধার হয়। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, আত্মঘাতী হয়েছেন ওই যুবক।
কিন্তু কেন আত্মঘাতী হলেন ওই যুবক? কারণ খুঁজতে গিয়ে পুলিশ জানতে পারে, তিনি মদ্যপানে আসক্ত ছিলেন। রাজ্যজুড়ে সব মদের দোকান বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে হতাশ হয়ে পড়েন। তার পরিবার জানিয়েছে, একে বাড়িতে বসে থাকার তায় মদের দোকান বন্ধ। সবমিলিয়ে অবসাদে ছিলেন ওই যুবক। মদ না পেয়ে গত দুদিন তার শরীর খারাপ হতে শুরু করে। ফলে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন তিনি। পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে।
ঘরে বাইরে চাপের মুখে পড়ে বুধবারই রাজ্যের সমস্ত মদের দোকান বন্ধ থাকার নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী কাদাকমপল্লি সুরেন্দ্রণ জানিয়েছেন, রাজ্যজুড়ে মদের দোকানগুলো বন্ধ করে দেওয়ায় আরো চারজন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তিরুবনন্তপুরমের ওই বাসিন্দাদের একই অবস্থা হয়েছে। মনোবিদরা জানিয়েছেন, মদের দোকানগুলো বন্ধ করে দেওয়ায় রাজ্যের ১৬ লাখ এমন মদ্যপানে আসক্ত ব্যক্তি অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। করোনা আতঙ্কের মধ্যেই এত মানুষ এই কারণে অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতালে তিল ধারণের জায়গা থাকবে না

Shares