আজ সোমবার , ১৭ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

বিচারপতি টি.এইচ.খান আর নেই হালুয়াঘাটের যুবককে পিটিয়ে হত্যা হালুয়াঘাটের যুবককে পিটিয়ে হত্যা হালুয়াঘাটে দুই গারো তরুণীকে দলবেঁধে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার-৫ বাউফলে নৌকার মাঝি হলেন বর্তমান মেয়র জুয়েল কেন্দুয়ায় মৃত ব্যক্তি ভেঙ্গেছে নৌকা প্রার্থীর বাড়ীঘর ওসি শাহিনুজ্জামান’র শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হালুয়াঘাটে প্রতিবেশীকে ফাঁসাতে শশুরকে জবাই জামাতার! রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা বাউফলে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালিত হালুয়াঘাটে ঐতিহাসিক তেলিখালী যুদ্ধ দিবস উদযাপন বাউফলে যুবদলের ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পলিত নালিতাবাড়ীতে শিক্ষক নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

করোনায় লকডাউন মদের দোকান! যুবকের আত্মহত্যা!

প্রকাশিতঃ ৯:১৫ অপরাহ্ণ | মার্চ ২৭, ২০২০ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৮১ বার

ভারতেজুড়ে চলছে লকডাউন। সামান্য কিছু জোগাড় করতে কাঠ-খড় পোড়াতে হচ্ছে। এমন অবস্থায় করোনার জেরে কেরালায় মৃত্যু! কিন্তু কোনো আক্রান্ত ব্যক্তির নন, বরং করোনার জেরে লকডাউনে রাজ্যে মদের দোকান বন্ধের নির্দেশে আত্মঘাতী এক যুবক। কুন্নাকুলমের বাসিন্দা সনোজ কুলাঙ্গারার (৩৮) ঝুলন্ত দেহ শুক্রবার তার ঘর থেকে উদ্ধার হয়। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, আত্মঘাতী হয়েছেন ওই যুবক।
কিন্তু কেন আত্মঘাতী হলেন ওই যুবক? কারণ খুঁজতে গিয়ে পুলিশ জানতে পারে, তিনি মদ্যপানে আসক্ত ছিলেন। রাজ্যজুড়ে সব মদের দোকান বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে হতাশ হয়ে পড়েন। তার পরিবার জানিয়েছে, একে বাড়িতে বসে থাকার তায় মদের দোকান বন্ধ। সবমিলিয়ে অবসাদে ছিলেন ওই যুবক। মদ না পেয়ে গত দুদিন তার শরীর খারাপ হতে শুরু করে। ফলে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন তিনি। পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে।
ঘরে বাইরে চাপের মুখে পড়ে বুধবারই রাজ্যের সমস্ত মদের দোকান বন্ধ থাকার নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী কাদাকমপল্লি সুরেন্দ্রণ জানিয়েছেন, রাজ্যজুড়ে মদের দোকানগুলো বন্ধ করে দেওয়ায় আরো চারজন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তিরুবনন্তপুরমের ওই বাসিন্দাদের একই অবস্থা হয়েছে। মনোবিদরা জানিয়েছেন, মদের দোকানগুলো বন্ধ করে দেওয়ায় রাজ্যের ১৬ লাখ এমন মদ্যপানে আসক্ত ব্যক্তি অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। করোনা আতঙ্কের মধ্যেই এত মানুষ এই কারণে অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতালে তিল ধারণের জায়গা থাকবে না

Shares