আজ মঙ্গলবার , ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

হালুয়াঘাটে ১২শত মানুষের মাঝে ‘প্রিন্সে’র শীত বস্ত্র বিতরণ পাটগ্রাম সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত চুয়াডাঙ্গায় স্বামীর মোটরসাইকেল থেকে পড়ে নিহত ১ ময়মনসিংহের ত্রিশাল সরকারি নজরুল একাডেমি ভর্তির লটারীর ড্র অনুষ্ঠিত ময়মনসিংহের ত্রিশাল কুড়াগাছা রাস্তার বেহাল দশা ময়মনসিংহের ত্রিশাল পৌরসভার বাতিলকৃত নির্বাচন ১৪ই ফেব্রুয়ারী আর কলেজে ভর্তি হওয়া হলো না নুসরাতের দুইবারের বেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সভাপতি নয়, হাইকোর্টের রায় স্টামফোর্ড সাংবাদিক ফোরামের সহ-সভাপতি হলেন বাউফলের মাজহারুল তামিম বাউফল প্রেসক্লাবের নব নির্বাচিত কমিটির শপথ গ্রহন বাউফলে আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত যাত্রীবাহি বাসে অজ্ঞান পার্টির ৫ জন ধৃত বাউফলে গোদরোগ প্রতিরোধে সামাজিক উদ্বুদ্ধকরণ সভা অনুষ্ঠিত হালুয়াঘাটে পানিতে ডুবে যুবকের মৃত্যু এনাম ডেন্টাল কেয়ার পরিবার গভীর ভাবে শোকাহত বাবলুর মৃত্যুতে

করোনায় লকডাউন মদের দোকান! যুবকের আত্মহত্যা!

প্রকাশিতঃ ৯:১৫ অপরাহ্ণ | মার্চ ২৭, ২০২০ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১২১ বার

ভারতেজুড়ে চলছে লকডাউন। সামান্য কিছু জোগাড় করতে কাঠ-খড় পোড়াতে হচ্ছে। এমন অবস্থায় করোনার জেরে কেরালায় মৃত্যু! কিন্তু কোনো আক্রান্ত ব্যক্তির নন, বরং করোনার জেরে লকডাউনে রাজ্যে মদের দোকান বন্ধের নির্দেশে আত্মঘাতী এক যুবক। কুন্নাকুলমের বাসিন্দা সনোজ কুলাঙ্গারার (৩৮) ঝুলন্ত দেহ শুক্রবার তার ঘর থেকে উদ্ধার হয়। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, আত্মঘাতী হয়েছেন ওই যুবক।
কিন্তু কেন আত্মঘাতী হলেন ওই যুবক? কারণ খুঁজতে গিয়ে পুলিশ জানতে পারে, তিনি মদ্যপানে আসক্ত ছিলেন। রাজ্যজুড়ে সব মদের দোকান বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে হতাশ হয়ে পড়েন। তার পরিবার জানিয়েছে, একে বাড়িতে বসে থাকার তায় মদের দোকান বন্ধ। সবমিলিয়ে অবসাদে ছিলেন ওই যুবক। মদ না পেয়ে গত দুদিন তার শরীর খারাপ হতে শুরু করে। ফলে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন তিনি। পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে।
ঘরে বাইরে চাপের মুখে পড়ে বুধবারই রাজ্যের সমস্ত মদের দোকান বন্ধ থাকার নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী কাদাকমপল্লি সুরেন্দ্রণ জানিয়েছেন, রাজ্যজুড়ে মদের দোকানগুলো বন্ধ করে দেওয়ায় আরো চারজন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তিরুবনন্তপুরমের ওই বাসিন্দাদের একই অবস্থা হয়েছে। মনোবিদরা জানিয়েছেন, মদের দোকানগুলো বন্ধ করে দেওয়ায় রাজ্যের ১৬ লাখ এমন মদ্যপানে আসক্ত ব্যক্তি অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। করোনা আতঙ্কের মধ্যেই এত মানুষ এই কারণে অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতালে তিল ধারণের জায়গা থাকবে না

Shares