আজ বুধবার , ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

কোভিড-১৯ প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে মেয়রের আহব্বান বাউফলে তারেক রহমানের জন্মবার্ষিকী পালিত বাউফলে প্রায়তঃ শিক্ষকের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া-মোনাজাত আত্মহত্যার পরও সূদের টাকার জন্য ফোন! ত্রিশালে সড়ক দূরঘটনায় একজন নিহত চার জন আহত ত্রিশালে যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত আমতলীতে মাদ্রাসা মাঠে ধান চাষ বরগুনায় ১০ দোকান পুড়ে ছাই হৃদয় হত্যাকাণ্ডে জড়িত প্রত্যেকের ফাঁসি চান পরিবার আইপিএলে ,নিঃস্ব হচ্ছে অনেক পরিবার ত্রিশাল অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্যোগে শাহ্ আহসান হাবীব বাবুর জন্ম দিন পালন বরগুনায় সেরা সম্পাদককে সংবর্ধনা বরগুনা বেতাগীর আলোচিত বজলু হত্যা মামলার ২ নম্বর আসামি আটক ত্রিশালে শহীদ বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান সড়ক উদ্বোধন ত্রিশালে বিভাগীয় কমিশনারের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

ময়মনসিংহ বিভাগে করোনা আক্রান্ত রোগী ১৫০০ ছাড়াল

প্রকাশিতঃ ৪:২৪ অপরাহ্ণ | জুন ০৯, ২০২০ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৮৫ বার

স্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহ বিভাগে নতুন করে ২৯ জন কোভিড-১৯–এ (করোনাভাইরাস) আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে বিভাগে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১ হাজার ৫০৮ হলো। গতকাল সোমবার রাতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব থেকে নমুনা পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করার পর এ তথ্য জানায় স্বাস্থ্য বিভাগ। গতকাল ময়মনসিংহে ১৬ জন, শেরপুরে ৭ জন এবং জামালপুরে ৩ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তবে এদিন নেত্রকোনায় কেউ আক্রান্ত হননি। জেলাভিত্তিক মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ময়মনসিংহে ৭৩০, জামালপুরে ৩৫৩, নেত্রকোনায় ৯৮ ও শেরপুরে ১২৭ জন। বিভাগে মোট আক্রান্তের ৪৮ শতাংশই ময়মনসিংহ জেলার।
বিভাগে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এঁদের মধ্যে ময়মনসিংহে ৮ জন, জামালপুরে ৪, নেত্রকোনায় ৩ এবং শেরপুর জেলায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ৫৯০ জন। সুস্থতার হার ৩৯ শতাংশ।
ময়মনসিংহে ২৩৯ জন, জামালপুরে ১৫৬, নেত্রকোনায় ১২৫ এবং শেরপুরে ৭০ জন সুস্থ হয়েছেন বলে জানা গেছে স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে।
ময়মনসিংহ স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক চিকিৎসক আবুল কাশেম বলেন, করোনা প্রতিরোধ করতে হলে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এলাকাভিত্তিক জরিপ কাজ শেষ পর্যায়ে। শিগগিরই সব এলাকাকে তিনটি ভাগ করে চিহ্নিত করে দেওয়া হবে।
পরবর্তী সময়ে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে আক্রান্তে সংখ্যার ভিত্তিতে এলাকাভিত্তিক লকডাউন (অবরুদ্ধ) ঘোষণা করা হবে।

Shares