আজ শুক্রবার , ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা বাউফলে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালিত হালুয়াঘাটে ঐতিহাসিক তেলিখালী যুদ্ধ দিবস উদযাপন বাউফলে যুবদলের ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পলিত নালিতাবাড়ীতে শিক্ষক নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন নালিতাবাড়ীতে শিক্ষক নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলার বিচারের দাবীতে আজ মানববন্ধন হালুয়াঘাটের শিমুলকুচি গ্রামে কামাল’র কুলখানি অনুষ্ঠিত হালুয়াঘাটে বৃদ্ধকে নির্যাতনের ঘটনায় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ হালুয়াঘাটের ট্রলি উল্টে দুই বন্দর শ্রমিকের মৃত্যু, আহত ৬ মাছ ধরার জালে ঢিল ছোড়ায় খুন হন শিশু শিক্ষার্থী সুমন হালুয়াঘাটে ১ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে খুন এমপি’র কাছে নালিশ করায় বৃদ্ধকে পিটিয়েছে চেয়ারম্যান হালুয়াঘাটে প্রতারিত শত শত কৃষক

ময়মনসিংহ বিভাগে করোনা আক্রান্ত রোগী ১৫০০ ছাড়াল

প্রকাশিতঃ ৪:২৪ অপরাহ্ণ | জুন ০৯, ২০২০ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২৬১ বার

স্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহ বিভাগে নতুন করে ২৯ জন কোভিড-১৯–এ (করোনাভাইরাস) আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে বিভাগে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১ হাজার ৫০৮ হলো। গতকাল সোমবার রাতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব থেকে নমুনা পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করার পর এ তথ্য জানায় স্বাস্থ্য বিভাগ। গতকাল ময়মনসিংহে ১৬ জন, শেরপুরে ৭ জন এবং জামালপুরে ৩ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তবে এদিন নেত্রকোনায় কেউ আক্রান্ত হননি। জেলাভিত্তিক মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ময়মনসিংহে ৭৩০, জামালপুরে ৩৫৩, নেত্রকোনায় ৯৮ ও শেরপুরে ১২৭ জন। বিভাগে মোট আক্রান্তের ৪৮ শতাংশই ময়মনসিংহ জেলার।
বিভাগে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এঁদের মধ্যে ময়মনসিংহে ৮ জন, জামালপুরে ৪, নেত্রকোনায় ৩ এবং শেরপুর জেলায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ৫৯০ জন। সুস্থতার হার ৩৯ শতাংশ।
ময়মনসিংহে ২৩৯ জন, জামালপুরে ১৫৬, নেত্রকোনায় ১২৫ এবং শেরপুরে ৭০ জন সুস্থ হয়েছেন বলে জানা গেছে স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে।
ময়মনসিংহ স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক চিকিৎসক আবুল কাশেম বলেন, করোনা প্রতিরোধ করতে হলে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এলাকাভিত্তিক জরিপ কাজ শেষ পর্যায়ে। শিগগিরই সব এলাকাকে তিনটি ভাগ করে চিহ্নিত করে দেওয়া হবে।
পরবর্তী সময়ে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে আক্রান্তে সংখ্যার ভিত্তিতে এলাকাভিত্তিক লকডাউন (অবরুদ্ধ) ঘোষণা করা হবে।

Shares