আজ বৃহস্পতিবার , ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩০শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

ময়মনসিংহের ত্রিশালে সাংবাদিক এনামুল ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া মাহফিল মা দিবসের শুভেচ্ছা ময়মনসিংহের এিশালে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি ও দীর্ঘায়ু কামনায় ইফতার হালুয়াঘাটে আরব আলী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৬ শত মানুষ পেল ঈদ উপহার হালুয়াঘাটে রাস্তার দাবিতে মানববন্ধন মর্ডান স্পোটিং ক্লাবের দোয়া ও ইফতার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা কায়েসের ঈদ উপহার সচেতনতা মুলক স্টিকার ও মাস্ক বিতরণ করলো জনপ্রিয় সেচ্ছাসেবী সংঘঠন ত্রিশাল হেল্পলাইন আজ শফিকুল ইসলাম ভাইয়ের মৃত্যুবার্ষিকী খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় ত্রিশাল ছাত্রদলের পক্ষ থেকে ইফতার বিতরণ হালুয়াঘাটে কৃষকের ধান কাটলেন এমপি হালুয়াঘাটে কর্মহীন মানুষের মাঝে রুবেলে’র খাদ্য সামগ্রী বিতরণ! করোনাঃ মৃত্যুর মিছিলে ১৫৪ চিকিৎসক বাউফলে ডায়রিয়া আক্রান্তদের মাঝে বিনামূল্যে স্যালাইন বিতরণ বাউফলে টাকা চুরি’র ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক যুবককে কুপিয়ে জখম

ময়মনসিংহ বিভাগে করোনা আক্রান্ত রোগী ১৫০০ ছাড়াল

প্রকাশিতঃ ৪:২৪ অপরাহ্ণ | জুন ০৯, ২০২০ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২২২ বার

স্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহ বিভাগে নতুন করে ২৯ জন কোভিড-১৯–এ (করোনাভাইরাস) আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে বিভাগে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১ হাজার ৫০৮ হলো। গতকাল সোমবার রাতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব থেকে নমুনা পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করার পর এ তথ্য জানায় স্বাস্থ্য বিভাগ। গতকাল ময়মনসিংহে ১৬ জন, শেরপুরে ৭ জন এবং জামালপুরে ৩ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তবে এদিন নেত্রকোনায় কেউ আক্রান্ত হননি। জেলাভিত্তিক মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ময়মনসিংহে ৭৩০, জামালপুরে ৩৫৩, নেত্রকোনায় ৯৮ ও শেরপুরে ১২৭ জন। বিভাগে মোট আক্রান্তের ৪৮ শতাংশই ময়মনসিংহ জেলার।
বিভাগে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এঁদের মধ্যে ময়মনসিংহে ৮ জন, জামালপুরে ৪, নেত্রকোনায় ৩ এবং শেরপুর জেলায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ৫৯০ জন। সুস্থতার হার ৩৯ শতাংশ।
ময়মনসিংহে ২৩৯ জন, জামালপুরে ১৫৬, নেত্রকোনায় ১২৫ এবং শেরপুরে ৭০ জন সুস্থ হয়েছেন বলে জানা গেছে স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে।
ময়মনসিংহ স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক চিকিৎসক আবুল কাশেম বলেন, করোনা প্রতিরোধ করতে হলে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এলাকাভিত্তিক জরিপ কাজ শেষ পর্যায়ে। শিগগিরই সব এলাকাকে তিনটি ভাগ করে চিহ্নিত করে দেওয়া হবে।
পরবর্তী সময়ে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে আক্রান্তে সংখ্যার ভিত্তিতে এলাকাভিত্তিক লকডাউন (অবরুদ্ধ) ঘোষণা করা হবে।

Shares