আজ বুধবার , ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

বাউফলে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ বাউফল উপজেলা ও পৌর সেচ্ছাসেবক দলের আহব্বায়ক কমিটি ঘোষণা বাউফলে ইউএনও’র বিদায়ী সংবর্ধনা নালিতাবাড়ীতে জেলা শিক্ষা অফিসারের বিদ্যালয় পরিদর্শন বাউফলে বিএনপি’র ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত বাউফলে ছেলের বিচার চেয়ে বাবা মায়ের সাংবাদিক সম্মেলন বাউফলে জাতীয় মৎস সপ্তাহ শুরু হালুয়াঘাটে বজ্রপাতে মৃত্যু! বাবার লাশের পাশে দেড় বছরের শিশু ‘নুসাইবা’ হালুয়াঘাটে নির্মাণের বছরেই বক্স কালভার্ট ধ্বস! বাউফলে বিএনপি’র চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া-মোনাজাত ভিক্ষের টাকা গণনা করছিলো ভিক্ষুক। ইমাম বাসের চাপায় মৃত্যু ঐ ভিক্ষুকের শোক দিবসে হালুয়াঘাটে বিজিবি’র ত্রাণ বিতরণ বাউফলে সফিউল বারী বাবু’র মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া-মোনাজাত করোনা টেস্ট করাতে অনিহা হালুয়াঘাটে করোনায় আক্তান্ত হয়ে ৯৬ বছরের বৃদ্ধের মৃত্যু। মোট মৃত্যু-৭

হালুয়াঘাটে শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে হত্যার মূল আসামী কমিশনার শামছুসহ সকলের গ্রেফতার দাবী

প্রকাশিতঃ ৮:১২ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৯৮৫ বার

স্টাফ রিপোর্টারঃ
ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার দক্ষিন মনিকূড়া গ্রামে নাফি আল নাজরান (১৮) নামে এক পলিটেকনিক্যাল ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী কমিশনার শামসুদ্দিনসহ অন্যান্য আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে পোষ্টার টানিয়ে প্রতিবাদ জানান নিহত নাজরানের পক্ষে এলাকাবাসী। দেখা যায়, ইতিমধ্যে হালুয়াঘাট বাজারের বিভিন্ন স্থানে কমিশনার শামছুসহ বাকী আসামীদের ছবি দিয়ে পোষ্টার লাগানো হয়। নিহত নাজরানার পরিবারের সাথে কথা বললে তারা বাকী আসামীদের গ্রেফতারের দাবী জানান। গত ১৭ আগষ্ট শিক্ষার্থী খুন হলে তৎক্ষনাৎ ৪ জনকে আটক করলেও বাকী আসামীদেরকে এখনো আটক হয়নি বলে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন নিহত নাজরানের পরিবার।
নাজরানের খুনের ঘটনায় মামলা দায়ের করেন নিহতের পিতা নাজমুল হুদা। এদের মাঝে চারজন সিয়াম, সুলাইমান, অয়ন, হিমেলকে প্রথমদিনেই আটক করে পুলিশ। হত্যার অভিযুক্ত আসামীরা হলেন, কমিশনার শামসুদ্দিন (৫০), দক্ষিন মনিকূড়ার হালিমের পুত্র রাকিবুল হাসান সুমন (১৬), সিদ্দিকের পুত্র সিয়াম (১৫), হালিমের পুত্র মেহেদি হাসান হিমেল (১৫), মজিবরের পুত্র অয়ন হাসান (১৬), গোলাম হোসেনের পুত্র ছাইফুল (১৫),আশিষ (১৬), আকনপাড়ার শামসুল আলম লিমনের পুত্র তাজ (১৬), আব্দুল মতিনের পুত্র সোহাগ (১৫), দক্ষিন মনিকূড়ার আলামিন (১৬), সন্ধাকুড়ার খাইরুল ইসলাম ভুট্টুর পুত্র সানি (১৬), পূর্ব মনিকূড়ার জামাল উদ্দিনের পুত্র রুকন (১৬)। উল্লেখ্য ঘটনার দিন শুক্রবার সন্ধায় নাদিয়া হক ঋতু নামে এক মেডিক্যাল শিক্ষার্থী মোবাইলের গেইম পেইজে “ক্লেস অফ ক্লেনস” নামে একটি মোবাইল গেইম খেললে সেখানে ঐ একই গ্রুপে উত্তরবাজার এলাকার হালিমের পুত্র সুমন(১৬) বাজে মন্তব্য করেন। পরে ঋতু বিষয়টি তার খালাতো ভাই নিহত নাজরানকে জানালে নাজরান তার প্রতিবাদ করেন। সেই আক্রোশের জের ধরে শুক্রবার রাত সাতটার দিকে সুমন তার সঙ্গীয় বন্ধুদের নিয়ে নাজরানকে বেধড়ক মারপিট করেন। পরে ভোর পাঁচটায় হালুয়ঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মারা যায়। নিহত নাজরান গৌরিপুর পলিটেকনিক্যাল কলেজের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আর ঋতু দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থী। ঋতুর ধোবাউড়া রোদের এমদাদ মেম্বারের কন্যা।

Shares