আজ শুক্রবার , ১২ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

নালিতাবাড়ীতে কৃষি মেলার উদ্ভোধন ইকোপার্কে বেড়াতে গিয়ে খালু কর্তৃক ভাগ্নী ধর্ষণের শিকার শ্রীবর্দীতে পানিতে ডুবে প্রতিবন্ধী শিশুর মৃত্যু মেয়ের খুনের বিচার চাইলেন বাবা বাউফলে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নালিতাবাড়ীতে বন্য হাতির আক্রমণে কৃষকের মৃত্যু দাশপাড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি আজম, সম্পাদক মজিবর নালিতাবাড়ীর নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর নিখোঁজ শিক্ষার্থী উদ্ধার নালিতাবাড়ীতে গণহত্যা দিবস পালিত দলিল প্রতি অতিরিক্ত ফি ১০ হাজার টাকা। প্রতিবাদে ধোবাউড়ায় সংবাদ সম্মেলন রামচন্দ্রকুড়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণায় বাঁধা: সংঘর্ষ, গাড়ি ভাংচুর, আহত হালুয়াঘাটে গাছের সাথে শত্রুতা হালুয়াঘাটে আরও ২৯ জন ভূমিহীনকে জমিসহ ঘর প্রদান ময়মনসিংহে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা, স্বামী আটক। প্রধান মন্ত্রীর উপহার চান ভাগ্য বিড়ম্বিত বিধবা রেনুবালা!

প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফল জুলাইয়ে

প্রকাশিতঃ ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ | জুন ২৯, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২৬৬ বার

সীমান্তবার্তা ডেস্কঃ  সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই)। জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে এ ফলাফল প্রকাশ করা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার ডিপিই মহাপরিচালক আবু হেনা মোস্তফা কামাল বলেন, সম্প্রতি শেষ হওয়া ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৪’ লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশের কাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে। জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে এ ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

তিনি বলেন, সম্পূর্ণ কম্পিউটারাইজডভাবে লিখিত পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন করা হয়েছে। নির্ভুলভাবে খাতা মূল্যায়ন হওয়ায় কাউকে নম্বর কম-বেশি করে দেয়ার কোনো সুযোগ নেই। তাই পরীক্ষায় পাস করে দেয়ার লোভ দেখিয়ে প্রার্থীরা কারো সঙ্গে কোনো লেনদেন না করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

মহাপরিচালক আরও বলেন, লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশের দুই সপ্তাহের মধ্যে উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষা শুরু করা হবে। কয়েকটি ভাগে পরবর্তী এক সপ্তাহের মধ্যে মৌখিক পরীক্ষা শেষ করা হবে। পরবর্তী দুই মাসের মধ্যেই চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হবে।

জানা গেছে, দেশের বিভিন্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শূন্য আসনে রাজস্ব খাতভুক্ত ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৪’ পরীক্ষার মাধ্যমে ১০ হাজার সহকারী শিক্ষক নেয়া হবে। তার বিপরীতে সারাদেশ থেকে প্রায় ৯ লাখ আবেদন জমা পড়ে। মামলাজনিত কারণে বিগত চার বছর নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত হয়ে পড়ে। চলতি বছরের মার্চে আবারও এ কার্যক্রম শুরু হয়।

গত ২০ এপ্রিল প্রথম ধাপের শিক্ষক নিয়োগ লিখিত পরীক্ষা শুরু হয়। সেখানে প্রায় দুই লাখ প্রার্থী অংশগ্রহণ করেন। দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষা গত ১১ মে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে প্রায় তিন লাখ প্রার্থী অংশগ্রহণ করেন। তৃতীয় ধাপের ২৬ মে প্রায় দুই লাখ এবং শেষ ধাপে ১ জুন প্রায় দুই লাখ প্রার্থী অংশগ্রহণ করেন।

মহাপরিচালক আবু হেনা মোস্তফা কামাল বলেন, দ্রুত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সংকট দূরীকরণ করা হবে। এ লক্ষ্যে চলমান নিয়োগের লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পরেই নতুন করে আরও ১০ থেকে ১২ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। স্থগিত হওয়া সহকারী শিক্ষক ২০১০ সালের এই নিয়োগ কার্যক্রম শেষ হলেও পরবর্তী নিয়োগের কার্যক্রম শুরু করা হবে বলেও জানান তিনি।

নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফল ও যাবতীয় তথ্য www.dpe.gov.bd এই ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

Shares