আজ শুক্রবার , ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

রিফাত হত্যা রায় ৩০ সেপ্টেম্বর ! মিন্নির সাজা হবে কি? টাংগাইল সদরের (বুরো এনজিও) কর্মকর্তা খুন। মতলব উত্তরে আধুনিক প্রযুক্তিতে বীজ উৎপাদন সংরক্ষনে মাঠ দিবস অনুষ্টিত টাংগাইলে জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান লিটন কে কুপিয়ে হত্যা চেস্টা। টাংগাইলে চতুর্থ শ্রেণির (১০) এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা। রাঙ্গাবালীতে বিয়ের প্রতিশ্রæতিতে প্রতারণার অভিযোগ, চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হালুয়াঘাটে বিজিবি’র পিটুনিতে আহত-১ প্রশ্নবিদ্ধ টি.এইচ.ও ডা. সোহেলী শারমিন! কোটি টাকার দূর্ণীতির নেপথ্যে–? হালুয়াঘাটে নারী সোর্স সুমিসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীর অভিযোগ বাউফলে এক ব্যক্তির চোখ উৎপাটন হালুয়াঘাটে সুমী’র অপকর্ম ফাঁস! প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ ২৪ ঘণ্টায় আরো ৪১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৮২৭ রূপগঞ্জ প্রেসক্লাবের স্বঘোষিত সভাপতির হুমকিতে ৫ সাংবাদিক এলাকাছাড়া করোনায় আরও ৩৬ জনের মৃত্যু মসজিদে এসি বিস্ফোরণে মৃত বেড়ে ২৮

মহাদেবপুরে বাবার বিরুদ্ধে মেয়েকে ধর্ষনের অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ১২:৫৭ পূর্বাহ্ণ | জুন ২৮, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৪৯ বার

নওগাঁ সংবাদদাতা: নওগাঁর মহাদেবপুরে সৎ বাবার বিরুদ্ধে শিশুকে (১০ বছর) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। সৎ বাবা আনিছুর রহমান (৪১) উপজেলার খোর্দ্দনারায়নপুর নিচপাড়া গ্রামের মৃত হারেজ মন্ডলের ছেলে। ঘটনার পর তিনি পলাতক আছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আনিছুর রহমান পর পর তিনটি বিয়ে করেন। তৃতীয় পক্ষের স্ত্রী বানু বেগম (৩৮) কে কয়েক বছর পূর্বে বিয়ে করেন। বানু বেগমের আগের পক্ষের স্বামীর দুইটি মেয়ে আছে। দুই মেয়েকে নিয়ে তিনি স্বামী আনিছুর রহমানের বাড়িতে বসবাস করতেন। গত ৫/৬ মাস পূর্ব থেকে ওই শিশুকে ভয়ভীতি দেখিয়ে গোপনে বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করেন আনিছুর রহমান।

গত সোমবার শিশুটির মা বানু বেগম তার মেয়েকে বাড়িতে রেখে বাবার বাড়িতে বেড়াতে যান। এসুযোগে আনিছুর রহমান শিশুকে বাড়িতে একা পেয়ে আবারও ধর্ষণ করেন। পরদিন মঙ্গলবার বিকেলে শিশুটির মা বাড়িতে আসলে তার মাকে সবকথা খুলে বলে। এরপর শিশুটির মা বানু বেগম স্বামী আনিছুর রহমানের কাছে জানতে চান। আনিছুর রহমান ঘটনার বিষয়ে কাউকে কিছু না বলার জন্য মা-মেয়েকে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদেরকে ঘরের মধ্যে রেখে দরজায় তালা দিয়ে পালিয়ে যায়। তাদের ডাক চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে উদ্ধার করে।

মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে এখনো কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। ঘটনাটি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য নওহাটা পুলিশ ফাঁড়ি এসআই মামুনকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

Shares