আজ শনিবার , ৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

মর্ডান স্পোটিং ক্লাবের দোয়া ও ইফতার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা কায়েসের ঈদ উপহার সচেতনতা মুলক স্টিকার ও মাস্ক বিতরণ করলো জনপ্রিয় সেচ্ছাসেবী সংঘঠন ত্রিশাল হেল্পলাইন আজ শফিকুল ইসলাম ভাইয়ের মৃত্যুবার্ষিকী খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় ত্রিশাল ছাত্রদলের পক্ষ থেকে ইফতার বিতরণ হালুয়াঘাটে কৃষকের ধান কাটলেন এমপি হালুয়াঘাটে কর্মহীন মানুষের মাঝে রুবেলে’র খাদ্য সামগ্রী বিতরণ! করোনাঃ মৃত্যুর মিছিলে ১৫৪ চিকিৎসক বাউফলে ডায়রিয়া আক্রান্তদের মাঝে বিনামূল্যে স্যালাইন বিতরণ বাউফলে টাকা চুরি’র ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক যুবককে কুপিয়ে জখম মৃত্যুপুরী ভারত শ্মশানে জায়গা না থাকায় গণচিতা ভারতে লুকানো হচ্ছে কোভিডে মৃতের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে মৃত্যু ও শনাক্ত সংখ্যা বাউফলে ভ্রাম্যমান দুধ, ডিম ও মাংস বিক্রয়ে ব্যাপক সাড়া করোনা ভাইরাস: দিল্লির হাসপাতালে অক্সিজেন বিপর্যয়ে বহু রোগীর মৃত্যু

সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা

প্রকাশিতঃ ৫:৫২ অপরাহ্ণ | জুন ২৬, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৮২ বার

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধিঃ ঢাকার ধামরাইয়ের রৌহা গ্রামে নিখোঁজের একদিন পর পূর্ণিমা আক্তার নামে সাত বছরের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে রৌহা বাঁশঝাড়ের ভেতর থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করেছে। শিশুটিকে ধর্ষণের পর গলাটিপে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হেেচ্ছ।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, ধামরাইয়ের রৌহা গ্রামের সামসুল ইসলামের মেয়ে রৌহা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী পূর্ণিমা আক্তার গতকাল সোমবার দুপুর ১টার দিকে ডিম ও ডাল কেনার জন্য বাড়ির পাশের বাজারে যায়। দেলোয়ার হোসেনের মুদি দোকান থেকে ডিম ও ডাল কিনে সে আর বাড়ি ফেরেনি। এরপর পরিবারের লোকজন তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজির পরও না পেয়ে বিকেলেই মাইকিং করা হয়।

পরে আজ মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে বাড়ি থেকে ৩০০ গজ দুরে একটি বাঁশঝাড়ের ভেতর স্থানীয় লোকজন শিশুটির লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ রক্তাক্ত ও গলা ফুলা অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
পূর্ণিমার বাবা সামসুল ইসলাম জানান, যেখানে লাশ পাওয়া গেছে গতকাল বিকেলেও সেখানে খোঁজাখুজি করে তাকে পাওয়া যায়নি। এছাড়া তার কোন শত্রু নেই বলেও জানান তিনি।
হত্যার কারণ ও দোষীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমৃলক শাস্তির দাবি করছেন স্থানীয়রা। সম্প্রতি ধামরাইয়ে ধর্ষণ ও ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনা বেড়ে যাওয়ার কারণ হিসেবে পুলিশের তৎপরতা কমে যাওয়াকেই দায়ী করছেন ধামরাইবাসী।

Shares