আজ বুধবার , ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার জনগণের অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত বিএনপি রাজপথে থাকবে-প্রিন্স ডামি নির্বাচন করে গণতন্ত্রকে আইসিইউতে পাঠিয়েছে আওয়ামী লীগ-প্রিন্স বাজারে পণ্যের অগ্নিমূল্যের তাপ তাদের গায়ে লাগেনা-প্রিন্স নালিতাবাড়ীতে প্রেসক্লাবের নির্বাচন, সভাপতি সোহেল সম্পাদক মনির গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে-বিএনপি নেতা প্রিন্স হালুয়াঘাটে বিএনপি নেতা প্রিন্স’র লিফলেট বিতরণ ৯৮ দিন কারাভোগের পর নিজ এলাকায় বিএনপি নেতা প্রিন্সকে সংবর্ধনা

বৃদ্ধা মা-মেয়েকে ঘর থেকে বের করে দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ৯:০৩ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১৫, ২০২২ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৯৮ বার

.নালিতাবাড়ী প্রতিনিধি: পারিবারিক কলহের জেরে বৃদ্ধা মা এবং মেয়েকে ঘর থেকে বের করে দিয়ে বাড়িছাড়া করার চেষ্টার অভিযোগ ওঠেছে শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে। সোমবার (১৫ আগস্ট) সকালে উপজেলার রূপনারায়নকুড়া ইউনিয়নের বাগিচাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাগিচাপুর গ্রামের হাজি মৃত আলী হোসেনের স্ত্রী ফাতেমা বেগম (৮০) স্বামীর রেখে যাওয়া বসতঘরে কন্যা সখিনা বেগম (৬০) কে নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। প্রায়ই আলী হোসেনের রেখে যাওয়া ত্রিশ একরের উপরে জমিজমা নিয়ে উত্তরাধিকারীদের মাঝে পারিবারিক কলহ লেগে থাকে। সোমবার পারিবারিক অন্য একটি বিষয়কে কেন্দ্র করে ফাতেমার সাথে তার ভাইয়ের স্ত্রী-পুত্রদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ভাতিজা মাসুদ (২১) ও আব্দুর রহিম (২৮) ফুফু সখিনার বিছানাপত্র বাইরে ছুড়ে ফেলে দেয়।
পরবর্তীতে এ নিয়ে সখিনার ছেলে ও ভাগ্নেরা গণমাধ্যম এবং থানা পুলিশের কাছে অভিযোগ করে, মাসুদ, রহিম ও তাদের মামা মাওলানা ইব্রাহিম মিলে সখিনা এবং বৃদ্ধা ফাতেমাকে মরধর করে ঘর থেকে বের করে দেয়। একই অভিযোগ এনে সখিনাকে বাদী করে ৪ জনকে অভিযুক্ত করে নালিতাবাড়ী থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে মাওলানা ইব্রাহিম জানান, আমি আমার মাকে দেখাশোনা করি। আমার বোন সখিনা বাড়িতে মায়ের সেবার জন্য থেকে প্রায়ই পারিবারিক কলহে জড়ায়। যার কারণে ভাগ্নেরা রাগে তার ফুকুকে বের করে দিতে চেয়েছিল। আমার এবং আমার ছেলের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এবং আমার মা-বোনকে মারধরের যে অভিযোগ আনা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। উত্তরাধিকার নিয়ে কলহের কারণে তারা এমন মিথ্যা অভিযোগ তুলছেন। সখিনা বেগম জানান, তার ভাই ইব্রাহিমের পরামর্শে ভাতিজা মাসুদ ও রহিম তাকে এবং তার মাকে বাড়ি থেকে মারধর করে বের করে দিতে চেয়েছিল। তবে বৃদ্ধা মা ফাতেমা বেগম জানান, নাতি মাসুদ ও রহিম তার ফুফুর বিছানাপত্র বাইরে ফেলে দেয়। আমার বিছানাপত্র ফেলে দেয়নি, কাউকে মরধরও করেনি।

Shares