আজ রবিবার , ১৪ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা বৈশাখ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার জনগণের অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত বিএনপি রাজপথে থাকবে-প্রিন্স ডামি নির্বাচন করে গণতন্ত্রকে আইসিইউতে পাঠিয়েছে আওয়ামী লীগ-প্রিন্স বাজারে পণ্যের অগ্নিমূল্যের তাপ তাদের গায়ে লাগেনা-প্রিন্স নালিতাবাড়ীতে প্রেসক্লাবের নির্বাচন, সভাপতি সোহেল সম্পাদক মনির গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে-বিএনপি নেতা প্রিন্স হালুয়াঘাটে বিএনপি নেতা প্রিন্স’র লিফলেট বিতরণ ৯৮ দিন কারাভোগের পর নিজ এলাকায় বিএনপি নেতা প্রিন্সকে সংবর্ধনা

সখিনা! স্বজনদের দাবীমতে উনিই পৃথিবীর বয়স্ক নারী।

প্রকাশিতঃ ৪:৪৩ অপরাহ্ণ | জুন ২৮, ২০২২ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৩৬৭ বার

ওমর ফারুক সুমন: এবার বাংলাদেশেই পৃথিবীর অন্যতম বয়স্ক নারীর সন্ধান মিলেছে। ময়মনসিংহ হালুয়াঘাট উপজেলার ৭নং শাকুয়াই ইউনিয়নের ফনিয়া গ্রামে এ নারীর সন্ধান পাওয়া যায়। স্থানীয়দের মতে তার বর্তমান বয়স প্রায় ১৫০ বছরের কাছাকাছি। ঐ নারীর নাম সখিনা খাতন (১৫০)। স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায় এ তথ্য। জানা যায়, সখিনার জীবন সায়ান্নের পরন্ত বেলা পার হয়েছে বহু আগেই। এখনো শৈশবের ঘটনা মনে করার চেষ্টা করেন তিনি। সখিনা খাতুনের শৈশব মানে আজ থেকে প্রায় ১৫০ বছর পেছনের ঘটন। দুই টাকায় একমন ধান, বাঁশের কঞ্চি আর কলাপাতায় লেখার মত ঘটনার স্মৃতিও এখনো বলতে পারেন তিনি। সখিনার সাথে কথা বললে তিনি জানান, তিনি দুই টাকা মনের ধান দেখেছেন। কিছু কিছু স্মৃতি মনে করতে পারলেও অধিকাংশ প্রশ্নের উত্তর জানা নেই বলে জানান তিনি। এদিকে সম্প্রতি সময়ে জনশুমারীর তথ্য সংগ্রহকারীরা মাঠ পর্যায়ে তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে বের হয়ে আসে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য। জনশুমারী তথ্য সংগ্রকারীদের তথ্য মতেই মূলত সন্ধান মিলে এত বছর বয়সী এই নারীর। স্থানীয়দের দাবীমতে, এই নারীর জন্ম উনবিংশ শতাব্দীর শেষের দিকে। তার তিন ছেলে তিন মেয়ের মধ্যে চারজনই মারা যান। এক ছেলে এক মেয়ে জীবিত রয়েছে। স্থানীয় এক মুরব্বি জানান, ২০০৭ সালে সখিনার বড় ছেলে ৯৪ বছর বয়সে মারা যান। স্থানীয় যত মুরব্বি রয়েছে সকলের জন্মই সখিনার হাতে হয়েছে বলে দাবী প্রতিবেশীদের। হালুয়াঘাট উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার ভট্টাচার্য বলেন, সম্প্রতি সময়ে মাঠ পর্যায়ে জনশুমারীর তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে আমরা জানতে পারি উনার বয়স ১৫০ বছর। এ নিয়ে স্থানীয় ২০-৩০ জন লোক ১৫০ বছর বয়সের পক্ষে স্বাক্ষী দেয়। বাস্তবে এত বয়স হয়েছে কিনা তার সঠিক প্রমান দিতে পারেনি বলেও জানান পরিসংখ্যান অফিসের এই কর্মকর্তা। তবে সখিনার জাতীয় পরিচয় পত্রে জন্ম তারিখ উল্লেখ করা হয়েছে ১১ জুন ১৯২৮ সাল। সেই অনুযায়ী বয়স দাঁড়ায় ৯৩ বছরের কাছাকাছি। তবে এটি তার সঠিক বয়স নয় বলে দাবী স্থানীয়দের। হালুয়াঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মুনির আহমেদ বলেন, বয়স নীর্ণয়ে অত্যাধুনিক পরীক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে। পরীক্ষা করলে বের হয়ে আসবে বয়সের সঠিক হিসাব। সসখিনার স্বজনদের দাবী, সখিনার বয়স পরীক্ষার মাধ্যমে বের করে পৃথিবীর বয়স্ক নারী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া। বয়স প্রমানিত হলে সখিনাই হবেন পৃথিবীর বয়স্ক নারী এমন দাবী স্বজনদের। ###

Shares