আজ সোমবার , ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

নালিতাবাড়ীর মাদক সম্রাট পিচ্চি খোকন আটক শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে বিশ্ব হাতি দিবস পালিত নালিতাবাড়ীতে কৃষি মেলার উদ্ভোধন ইকোপার্কে বেড়াতে গিয়ে খালু কর্তৃক ভাগ্নী ধর্ষণের শিকার শ্রীবর্দীতে পানিতে ডুবে প্রতিবন্ধী শিশুর মৃত্যু মেয়ের খুনের বিচার চাইলেন বাবা বাউফলে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নালিতাবাড়ীতে বন্য হাতির আক্রমণে কৃষকের মৃত্যু দাশপাড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি আজম, সম্পাদক মজিবর নালিতাবাড়ীর নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর নিখোঁজ শিক্ষার্থী উদ্ধার নালিতাবাড়ীতে গণহত্যা দিবস পালিত দলিল প্রতি অতিরিক্ত ফি ১০ হাজার টাকা। প্রতিবাদে ধোবাউড়ায় সংবাদ সম্মেলন রামচন্দ্রকুড়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণায় বাঁধা: সংঘর্ষ, গাড়ি ভাংচুর, আহত হালুয়াঘাটে গাছের সাথে শত্রুতা হালুয়াঘাটে আরও ২৯ জন ভূমিহীনকে জমিসহ ঘর প্রদান

বীরত্ব আর সাহসিকতার স্বীকৃতি পেলেন এসপি তারিক

প্রকাশিতঃ ১১:২০ পূর্বাহ্ণ | জুন ২৭, ২০২২ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৩৯ বার

স্টাফ রিপোর্টারঃ তিনি নিজ জেলা খুলনা থেকে এসএসসি পাশ করে ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। এরপর ইংরেজি সাহিত্যে বিএ (সম্মান) এবং এমএ শেষ করেন । গর্বিত বীর মুক্তিযোদ্ধার এই সন্তান ২৫তম বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে চাকরি শুরু করেন।
বর্তমানে অধিনায়ক ( পুলিশ সুপার ) ১৬ এপিবিএন, টেকনাফ কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দায়িত্ব পালন করছেন। কর্মজীবনের শুরু ডিএমপি থেকে। ২০০৯ হতে ২০১২ পর্যন্ত স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্সের ( এসএসএফ ) সদস্য হিসেবে মহামান্য *রাষ্ট্রপতি* এবং মাননীয় *প্রধানমন্ত্রী ‘র নিরাপত্তায় নিয়োজিত ছিলেন । এসএসএফ *স্পেশাল* *এজেন্ট* হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর গাড়ি চালনার দায়িত্ব পালন করেছেন।

২০২০ সাল হতে এপিবিএন এর অধিনায়ক হিসেবে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সুরক্ষা, সেবা এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

বীরত্ব ও সাহসিকতাপূর্ণ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে এবছর ” পিপিএম”পদকে ভূষিত হয়েছেন।

শিশুদের প্রতি ভালবাসা :
রোহিঙ্গা শিশুদের সাথে খেলা এবং প্রতি শুক্রবার চকলেট বিতরন করেন তিনি। এসপি তারিক নিজেই অপরাধ দমনে এবং অপরাধী গ্রেফতারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প এবং ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড়ে অভিযানে নেতৃত্ব দেন। আটক করেন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী, অপহরণকারী, অস্ত্র কারবারি ও বিপুল পরিমান মাদক উদ্ধার করে আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রেখেছেন। যা প্রশংসার দাবি রাখে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পের শিশুরা অধিনায়ক (এসপি) তারিক কে মামা বলে ডাকেন এবং তিনি তাদের কাছে আসলে জড়িয়ে ধরেন। শিশুরা প্রতি শুক্রবার তাদের মামা চকলেট নিয়ে আসবে অপেক্ষায় পথ চেয়ে বসে থাকে।

Shares