আজ বুধবার , ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

এম্বুলেন্সে করে মাদক পাচারকালে ২৪০ বোতল ভারতীয় মদসহ একজন আটক এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার জনগণের অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত বিএনপি রাজপথে থাকবে-প্রিন্স ডামি নির্বাচন করে গণতন্ত্রকে আইসিইউতে পাঠিয়েছে আওয়ামী লীগ-প্রিন্স বাজারে পণ্যের অগ্নিমূল্যের তাপ তাদের গায়ে লাগেনা-প্রিন্স নালিতাবাড়ীতে প্রেসক্লাবের নির্বাচন, সভাপতি সোহেল সম্পাদক মনির গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে-বিএনপি নেতা প্রিন্স হালুয়াঘাটে বিএনপি নেতা প্রিন্স’র লিফলেট বিতরণ

স্বামীর নির্যাতনে স্ত্রীর আত্মহত্যা। গ্রেফতার হয়নি স্বামী

প্রকাশিতঃ ১২:১৩ অপরাহ্ণ | জুন ২৪, ২০২২ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২৩৭ বার

মোঃ দৌলত হোসেন নালিতাবাড়ী শেরপুর সংবাদ দাতা।
বিয়ের পর থেকে চুন থেকে পান খসলেই চলে আসা স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে অবশেষে বিষপানে আত্মহত্যার দুই মাস পেরিয়ে গেলেও গ্রেফতার হয়নি স্বামী জালাল উদ্দিন। ফলে ন্যায় বিচার নিয়ে শঙ্কায় ওই গৃহবধূর তিন সন্তান ও অন্য স্বজনেরা।
জানা গেছে, শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার নয়াবিল ইউনিয়নের হাতিপাগার গ্রামের যমকান্দায় জালাল উদ্দিনের সাথে প্রায় ১৮ বছর আগে বিয়ে হয় নয়াবিল গ্রামের নূর নাহারের। বিয়ের পর থেকে পারিবারিক নানা বিষয় নিয়ে ঝগড়া হলেই স্বামী জালাল চড়াও হতেন স্ত্রী নূর নাহারের উপর। এ নিয়ে অসংখ্যবার পারিবারিক বৈঠক এমনকি উভয়ের মাঝে ছাড়াছাড়ি পর্যন্ত গড়ায়। তবু সন্তানদের কথা বিবেচনায় এনে বারবার সংসারে মনযোগী হওয়ার চেষ্টা করে নূর নাহার।
সবশেষ চলতি বছরের গেল রমজান মাসে ১২ এপ্রিল বিকেলে মাদরাসা পড়–য়া কিশোর ছেলে নাজমুল হাসান (১২) এর পিঁয়াজু খাওয়ার আবদারকে কেন্দ্র করে জালাল উদ্দিন ছেলেকে মারধর করে। এতে মা নূর নাহার প্রতিবাদ করলে তার উপরও চড়াও হয় স্বামী জালাল। একপর্যায়ে নির্যাতন সইতে না পেরে ভয়ে ঘরের দরজা আটকে ভিতরে বসে থাকে। এসময় স্বামী জালাল নূর নাহারকে মেরে ফেলার হুমকী দেয় ও দরজায় দা নিয়ে বসে থাকে। একপর্যায়ে নূর নাহার ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। ততক্ষণে খবর পেয়ে নূর নাহারের পিতাসহ স্বজনেরা বাড়ি আসেন এবং গুরুতর নূর নাহারকে উদ্ধার করে প্রথমে নালিতাবাড়ী পরে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেলে পাঠানো হয়। পাঁচদিন চিকিৎসার পর আইসিইউতে থাকাবস্থায় ১৮ এপ্রিল মারা যান নির্যাতিতা গৃহবধূ নূর নাহার।
এ ঘটনায় নূর নাহারের পিতা নূর আলী বাদী হয়ে শেরপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ দাখিল করলে আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে নালিতাবাড়ী থানায় এজাহার গ্রহণ পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ প্রদান করেন। চলতি জুনের প্রথমদিকে মামলাটি এজাহার হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করা হলেও ধরাছোয়ার বাইরে রয়ে গেছে অভিযুক্ত স্বামী জালাল উদ্দিন।
তবে জালাল উদ্দিন নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করে জানিয়েছেন, সংসারে সামান্য কিছু হলেই তার স্ত্রী এর আগেও একাধিকবার আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। কিন্তু তিন সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে তিনি সব সহ্য করেন।
এ বিষয়ে নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বছির আহমেদ বাদল জানান, মামলা এজাহার হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। আসামীকে গ্রেফতারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Shares