আজ বৃহস্পতিবার , ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

সখিনা! স্বজনদের দাবীমতে উনিই পৃথিবীর বয়স্ক নারী। প্রধানমন্ত্রীর সামনে তরুণীর আর্তনাদ নিরন্ন মানুষের বোবা কান্নার প্রতিধ্বনি: এমরান সালেহ প্রিন্স বীরত্ব আর সাহসিকতার স্বীকৃতি পেলেন এসপি তারিক নালিতাবাড়ীতে বিদেশী মদসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক নকলায় আমির হোসেন বিশ্ব’র টাকা তৈরির ফাঁদ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে হালুয়াঘাটে আনন্দ র‍্যালী নালিতাবাড়ীতে আগুনে পুড়ে তিন গরুর মৃত্যু নালিতাবাড়ীতে নিখোঁজের ১৬ দিন পর লাশ উদ্ধার স্বামীর নির্যাতনে স্ত্রীর আত্মহত্যা। গ্রেফতার হয়নি স্বামী বাউফলে ডিজিটাল পদ্ধতিতে জনশুমারী ও গৃহগণনার কাজ সম্পন্ন নকলায় সংবাদ কর্মীর উপর হামলা উৎসব বন্ধ করে দূর্দিনে জনগণের পাশে দড়ানঃএমরান সালেহ প্রিন্স কবরস্থানের টাকা আত্মসাৎ,কবরস্থানের উন্নয়নে বাধা প্রদান করায় প্রতিবাদে সংবাদ সন্মেলন পাহাড়ী ঢলে ভোগাই নদীর ভাঙ্গন! ভেঙ্গে গেছে ব্রীজ নালিতাবাড়ীতে প্রাকৃতিক দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ত্রান বিতরন

বগুড়ার শেরপুরে মসজিদ কমিটি গঠন নিয়ে বিরোধ, ক্ষোভ ও উত্তেজনা

প্রকাশিতঃ ৭:২০ পূর্বাহ্ণ | জুন ১৬, ২০২২ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৩০৭ বার

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি:বগুড়ার শেরপুরে মসজিদ কমিটির গঠন নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে উভয়পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। ঘটনাটি উপজেলার  তেঁতুলিয়া গ্রামে ওয়াকফ এস্টেটভুক্ত তেঁতুলিয়া জামে মসজিদের ক্ষেত্রে ঘটেছে। এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের সম্ভাবনা রয়েছে বলে একাধিক সুত্রে জানা গেছে।  সরেজমিনে জানা যায়, উপজেলার বিশালপুর ইউনিয়নের তেঁতুলিয়া গ্রামে ওয়াকফ এস্টেটভুক্ত তেঁতুলিয়া জামে মসজিদের পরিচালনা কমিটির মেয়াদ ২০২১ সালে শেষ হয়। তারপর নতুন কমিটি গঠন করার জন্য অত্র মসজিদের সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশক্রমে কয়েকদিন ধরে এলাকায় মাইকিং করে ১৫৭ জন স্বাক্ষরিত ১৪ সদস্যের একটি পরিচালনা কমিটির তালিকা প্রণয়ন করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট প্রেরণ করেন। কিন্তু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওই কমিটির কাগজ গ্রহন না করে ফেরৎ পাঠান। এমতাবস্থায় এক বছর যাবৎ মসজিদের কোন পরিচালনা কমিটি গঠন ঝুলে আছে। এদিকে কমিটি না থাকায় একবছর যাবৎ ইমামের বেতন, মুয়াজ্জিনের বেতন, বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ কর যাচ্ছে না। তাছাড়া কমিটি না থাকায় মসজিদের নামে ৩৭ বিঘা জমির লিজ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এতে মসজিদের উন্নয়ন কাজ ব্যাহত হচ্ছে। এরফলে মসজিদ কমিটিকে ঘিরে এলাকায় চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের সম্ভাবনা রয়েছে বলে এলাকার অনেকেই জানায়।

এ ব্যাপারে ওই এলাকাবাসীদের মধ্যে  জিন্নাত আলী, আব্দুল মজিদ, সাহেব আলী, বুলু মিয়াসহ একাধিক ব্যক্তি বলেন, মসজিদ পরিচালনা কমিটি না থাকায়, মুয়াজ্জিন ও ইমামের বেতন ভাতা, বিদ্যুৎ বিল না দেয়া এবং মসজিদ অনুকুলে থাকা জমিগুলো লীজ না দেয়ায় উন্নয়ন কর্মকান্ড ব্যাহত হচ্ছে। এসব সমস্য সমাধানের জন্য উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এ বিষয়ে শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ময়নুল ইসলাম বলেন, মসজিদ পরিচালনা কমিটি গঠনের জন্য নোটিশ করা হয়েছে। বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Shares