আজ রবিবার , ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

রিফাত হত্যা রায় ৩০ সেপ্টেম্বর ! মিন্নির সাজা হবে কি? টাংগাইল সদরের (বুরো এনজিও) কর্মকর্তা খুন। মতলব উত্তরে আধুনিক প্রযুক্তিতে বীজ উৎপাদন সংরক্ষনে মাঠ দিবস অনুষ্টিত টাংগাইলে জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান লিটন কে কুপিয়ে হত্যা চেস্টা। টাংগাইলে চতুর্থ শ্রেণির (১০) এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা। রাঙ্গাবালীতে বিয়ের প্রতিশ্রæতিতে প্রতারণার অভিযোগ, চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হালুয়াঘাটে বিজিবি’র পিটুনিতে আহত-১ প্রশ্নবিদ্ধ টি.এইচ.ও ডা. সোহেলী শারমিন! কোটি টাকার দূর্ণীতির নেপথ্যে–? হালুয়াঘাটে নারী সোর্স সুমিসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীর অভিযোগ বাউফলে এক ব্যক্তির চোখ উৎপাটন হালুয়াঘাটে সুমী’র অপকর্ম ফাঁস! প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ ২৪ ঘণ্টায় আরো ৪১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৮২৭ রূপগঞ্জ প্রেসক্লাবের স্বঘোষিত সভাপতির হুমকিতে ৫ সাংবাদিক এলাকাছাড়া করোনায় আরও ৩৬ জনের মৃত্যু মসজিদে এসি বিস্ফোরণে মৃত বেড়ে ২৮

আশ্চর্য হলেও সত্যি! নারী সাংবাদিককে অকস্মাৎ চুমু, অতঃপর

প্রকাশিতঃ ১:১০ অপরাহ্ণ | জুন ২০, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৭৭ বার

ডেস্ক রিপোর্টঃ রাশিয়া বিশ্বকাপ কাভার করছিলেন জুলিথ গঞ্জালেস থেরান। কলম্বিয়ান এই নারী ক্রীড়া সাংবাদিক জার্মান সংবাদ চ্যানেল ডয়েচে ভ্যালের হয়ে রাশিয়ায় গেছেন। কাজের সূত্রেই সরাসরি সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানে কথা বলছিলেন তিনি। হঠাৎ এক ব্যক্তি এসে তাকে জড়িয়ে ধরে চুমু দিলেন! তবে এতে থেমে যান নি থেরান। একবিন্দু না থেমে বরং কথা চালিয়ে গেছেন। বৃটিশ দৈনিক ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়, ঘটনার সময় সসানস্ক শহরের একটি বিশ্বকাপ কাউন্টডাউন ঘড়ির সামনে উপস্থিত ছিলেন থেরান।

মাইক্রোফোন হাতে তিনি যখন কথা বলছিলেন, তখন তা সরাসরি সম্প্রচারিত হচ্ছিল। কিন্তু অকস্মাৎ ওই লোকটি আপত্তিকরভাবে তাকে জড়িয়ে ধরে গালে চুমু দেয়। এমন ভয়াবহ ঘটনার পরও ঘাবড়ে যাননি থেরান। বরং, ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে নিজের বক্তব্য শেষ করেছেন।

পরে ঘটনার ফুটেজ নিজের ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে আপলোড করে থেরান বলেন, ‘আমি সেখানে দুই ঘণ্টা আগে থেকে প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। তখন কিছুই হয়নি। কিন্তু যখনই আমরা সরাসরি সম্প্রচারে গেলাম, এই লোকটি তার সুযোগ নিল।’
তিনি আরও বলেন, ‘লোকটি আমার দিকে এসে আমাকে আপত্তিকরভাবে স্পর্শ করে। গালে চুমু দেয়। কিন্তু আমাকে কথা চালিয়ে যেতে হয়েছিল। সম্প্রচার শেষে আমি আশেপাশে খুঁজে দেখেছি লোকটি আছে কিনা। কিন্তু সে ততক্ষণে পালিয়ে গেছে।’
সাংবাদিক থেরান আরও বলেন, ‘এই ধরণের আচরণ আমাদের প্রাপ্য নয়। আমরা সমান পেশাদার। ফুটবলের যে আনন্দ, তা আমারও। তবে মুগ্ধতা ও হয়রানির মধ্যে যে পার্থক্য, তা আমাদের চিহ্নিত করতে হবে।’
থেরানের অনেক অনুসারী এই ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। একজন মন্তব্য করেছেন, ‘এই ধরণের ঘটনা কাম্য নয়। আপনি একজন বুদ্ধিমতি, সুন্দরী ও মহীয়সী নারী।’ আরেক মন্তব্যকারী লিখেছেন, ‘আপনি ঘটনা ভালোভাবেই সামলেছেন। কিন্তু লোকটি প্রথম শ্রেণির বেয়াদব।’
লোকটির পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

Shares