আজ সোমবার , ১৭ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

বিচারপতি টি.এইচ.খান আর নেই হালুয়াঘাটের যুবককে পিটিয়ে হত্যা হালুয়াঘাটের যুবককে পিটিয়ে হত্যা হালুয়াঘাটে দুই গারো তরুণীকে দলবেঁধে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার-৫ বাউফলে নৌকার মাঝি হলেন বর্তমান মেয়র জুয়েল কেন্দুয়ায় মৃত ব্যক্তি ভেঙ্গেছে নৌকা প্রার্থীর বাড়ীঘর ওসি শাহিনুজ্জামান’র শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হালুয়াঘাটে প্রতিবেশীকে ফাঁসাতে শশুরকে জবাই জামাতার! রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা রামচন্দ্রকুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা বাউফলে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালিত হালুয়াঘাটে ঐতিহাসিক তেলিখালী যুদ্ধ দিবস উদযাপন বাউফলে যুবদলের ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পলিত নালিতাবাড়ীতে শিক্ষক নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

হালুয়াঘাটে চেয়ারম্যান ইরাদের সকল অপকর্ম ফাঁস! পুলিশের জালে আটক

প্রকাশিতঃ ২:৫৫ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ০১, ২০২০ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১২৫ বার

ওমর ফারুক সুমনঃ অবশেষে ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার মাফিয়া ডন হিসেবে পরিচিত ১২নং স্বদেশী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিহাদ হোসেন সিদ্দিকী ইরাদের সকল অপকর্ম ফাঁস করেছে ভুক্তভোগীরা।পাশাপাশি পুলিশের জালে আটক হয়ে অনেক অপকর্মের স্বীকারোক্তিও দিয়েছে বলে জানা গেছে। ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে জন্ম দিয়েছেন বহু বিতর্কের। কারাগারে গিয়েছেন একাধিকবার। তবুও থেমে নেই তার অপরাধ সাম্রাজ্যের অপকর্ম। খুন, মাদক ব্যবসা, নারী নির্যাতন, লুটতরাজ, পুলিশের উপর আক্রমনসহ এমন কোনো অপকর্ম নেই যা তিনি করেননা।ইউনিয়ন পরিষদে ইয়াবা সেবনের আখরা বানিয়ে রেখেছেন। ইয়াবা বিক্রির অভিযোগে কয়েকবার আটকও হয়েছেন। অভিযোগ রয়েছে, তার কথার বাহিরে চললে ধরে নিয়ে যান নিজস্ব কামরায়। তার উপর চালানো হয় নির্যাতন। পরে মুক্তিপণ দিয়ে ছাড়া পান নির্যাতিতরা। তার কথার অবাধ্য হলে কারও কেটে দেন পা, কারও হাত এমন বহু অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ——————- —-
বারবার অপরাধ করেও প্রমানের অভাবে পার পেয়ে যান অপরাধ সাম্রাজ্যের গড ফাদার চেয়ারম্যান ইরাদ। তার বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পাননা কেউ। পুলিশ জানায়, তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রয়েছে অর্ধ ডজন খানেক।চাঁদাবাজী, লুটতরাজ, মাদক, ইয়াবাসহ নানান অপরাধের ফিরিস্তি রয়েছে পুলিশের কাছে।———
চেয়ারম্যান ইরাদের শাসনের স্টাইলটা অনেকটা কুখ্যাত সন্ত্রাসী এরশাদ সিকদারের মতো এমন অভিযোগ কারও। পুলিশ বার বার আটক করে জেলখানায় পাঠালেও আইনের ফাঁক দিয়ে বের হয়ে আবার শুরু করে নানা অপকর্ম। তারই ধারাবাহিক তান্ডবে গতকাল বুধবার বিকেলে প্রকাশ্যে দিবালোকে কুপিয়ে খুন করেছেন আব্দুল কাদির নামে ৬৫ বৎসরের এক বৃদ্ধকে।ঘটনাটি ঘটে ১২নং স্বদেশী ইউনিয়নের গাজিপুর গ্রামে। পরে রাতেই অভিযান চালিয়ে হালুয়াঘাট থানার ওসি মাহমুদুল হাসানের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স চেয়ারম্যান ইরাদসহ তিনজনকে আটক করে। স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, বালু উত্তোলনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দিনদুপুরে চাপাতি, রামদা ও দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হইয়া নৃশংস এ হত্যাকান্ড চালানো হয় ঐ বৃদ্ধসহ অন্যান্যদের উপর।————————–
এতে ঘটনাস্থলে একজন নিহত সহ ৪ জন গুরুতর আহত হয়।নৃশংস এ হত্যাকান্ডে পরিবারসহ পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। ইরাদসহ জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষুব্ধ স্থানীয়রা। ——
পরে ১৬ জনকে আসামী করে হালুয়াঘাট থানায় মামলা দায়ের করেন নিহতের পুত্র ফরিদ মিয়া। পুলিশের হাতে আটককৃত অপর দুই আসামী হলেন, ফুলপুর উপজেলার সানচুর গ্রামের আবুল হোসেনের পুত্র সাজাহান (২৬) ও হালুয়াঘাট উপজেলার বালিজুড়ি গ্রামের সুরুজ আলীর পুত্র সোহেল (২৫)।ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে হালুয়াঘাট থানার ওসি মাহমুদুল হাসান বলেন, ইরাদের বিরুদ্ধে ৬টি মামলা রয়েছে। সর্বশেষ আব্দুল কাদিরকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় চেয়ারম্যান ইরাদসহ তিনজনকে আটক করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। নৃশংস এ হত্যাকান্ডের বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে মামলাটি তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন ওসি মাহমুদুল হাসান।

Shares