আজ সোমবার , ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

ভালুকায় সাংবাদিক নিগ্রহের বিচার দাবিতে মানববন্ধন রিফাত হত্যা রায় ৩০ সেপ্টেম্বর ! মিন্নির সাজা হবে কি? টাংগাইল সদরের (বুরো এনজিও) কর্মকর্তা খুন। মতলব উত্তরে আধুনিক প্রযুক্তিতে বীজ উৎপাদন সংরক্ষনে মাঠ দিবস অনুষ্টিত টাংগাইলে জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান লিটন কে কুপিয়ে হত্যা চেস্টা। টাংগাইলে চতুর্থ শ্রেণির (১০) এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা। রাঙ্গাবালীতে বিয়ের প্রতিশ্রæতিতে প্রতারণার অভিযোগ, চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হালুয়াঘাটে বিজিবি’র পিটুনিতে আহত-১ প্রশ্নবিদ্ধ টি.এইচ.ও ডা. সোহেলী শারমিন! কোটি টাকার দূর্ণীতির নেপথ্যে–? হালুয়াঘাটে নারী সোর্স সুমিসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীর অভিযোগ বাউফলে এক ব্যক্তির চোখ উৎপাটন হালুয়াঘাটে সুমী’র অপকর্ম ফাঁস! প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ ২৪ ঘণ্টায় আরো ৪১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৮২৭ রূপগঞ্জ প্রেসক্লাবের স্বঘোষিত সভাপতির হুমকিতে ৫ সাংবাদিক এলাকাছাড়া করোনায় আরও ৩৬ জনের মৃত্যু

বাউফলে এক চিকিৎকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ১০:৩৩ অপরাহ্ণ | জুন ০৮, ২০২০ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৭৬ বার

তোফাজ্জেল হোসেন,বাউফল(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর বাউফল হেলথ কেয়ার ডায়াগনষ্টিক সেন্টার এ্যান্ড ক্লিনিকের এক চিকিৎকের বিরুদ্ধে নারী স্টাফকে যৌন হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই চিকিৎসকের নাম ডাঃ মোঃ শাহ আলম (৬৫)। তিনি এক সময় বাউফল স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসাবে চাকরী করতেন। বর্তমানে তিনি ওই ডায়াগনস্টিক সেন্টার এ্যান্ড ক্লিনিকের এনেসথেসিয়ার চিকিৎসক হিসাবে কাজ করছেন। তার বাড়ি উপজেলার দাশপাড়া ইউনিয়নের দাশপাড়া গ্রামে।
অভিযোগ রয়েছে, পৌর শহরের হাসপাতাল রোড এলাকার বাউফল হেলথ কেয়ার ডায়াগনষ্টিক সেন্টার এ্যান্ড ক্লিনিকের নারী স্টাফকে (৩৫) ওই ডায়াগনষ্টিক সেন্টার এ্যান্ড ক্লিনিকের ডাঃ মোঃ শাহ আলম বেশ কিছু দিন ধরে যৌন হয়রানি করছেন। তাকে বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাব দেন। কিন্তু ওই নারী স্টাফ (ফিজিশিয়ান) তার কথায় রাজী না হওয়ায় ওই চিকিৎসক তাকে শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন শুরু করেন। কয়েক দিন অগে ওই চিকিৎসক নারী স্টাফকে ক্লিনিকে একটি রুমে ডেকে নিয়ে তার শরীরের আপত্তিকর সব জায়গায় হাত দেন এবং তাকে দিয়ে জোরপূর্বক শরীর ম্যাসেস করান।
ওই নারী স্টাফ অভিযোগ করেন, ওই চিকিৎসক তার প্যান্ড খুলে গোপনাঙ্গ ম্যাসেস করতে বলেন। প্রথম দিকে তিনি আপত্তি করলেও পরে নিরুপায় হয়ে সেই কাজটি করেন। এসময় ওই চিকিৎসক তাকে কুপ্রস্তা বদিলে তিনি রাজি হননি। এ ভাবে প্রতিদিন তাকে যৌন হয়রানি করা হয়। এ ঘটনা ওই ক্লিনিকের মালিক ও স্টাফরা জানলেও কেউ কোন ব্যবস্থা নেননি। বরং ওই চিকিৎসক এখন তাকে চাকুরিচ্যুত করার হুমকি দিচ্ছেন।
ওইচিকিৎসক কর্তৃক নারী স্টাফকে (ফিজিশিয়ানকে) যৌন হয়রানীর একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

Shares