আজ রবিবার , ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে পৃথক স্থানে ট্রেনে কাটা পড়ে ২জন নিহত এমপি’র পক্ষে হালুয়াঘাট ধান্য ব্যবসায়ী সমিতির কম্বল বিতরণ ধোবাউড়ায় ট্রাক-হোন্ডা সংঘর্ষে নিহত-২, চালক ও হেলপার আটক বাউফলে ইউপি চেয়ারম্যানের ওপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবি হালুয়াঘাটে ঝরে পড়া শিশুরা পাবে শিক্ষার সুযোগ। আসছে শিক্ষক নিয়োগও হালুয়াঘাটে স্বামীর আত্নহত্যা দেখে স্ত্রীও বিষ খায়! দুজনেরই মৃত্যু হালুয়াঘাটে স্বামী-স্ত্রীর আত্নহত্যা রাহেলা হযরত মডেল স্কুলে প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত ত্রিশাল অনলাইন প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে ভাষা শহীদদের স্মরণে শ্রদ্ধাঞ্জলি ভাষা শহীদদের প্রতি কংশ টিভির পরিবার ও গণমাধ্যম কর্মীদের শ্রদ্ধাঞ্জলী ফুটবল ফাইনাল টুর্নামেন্টে বিজয়ী মধুপুর একাদশ স্পোটিং ক্লাব ২৮ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ময়মনসিংহ জেলার শ্রেষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ত্রিশালের মোস্তাফিজুর রহমান হালুয়াঘাটে পিকনিকের বাস উল্টে আহত-৮ ময়মনসিংহের ত্রিশালে করোনা টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন

বাউফলে এক চিকিৎকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ১০:৩৩ অপরাহ্ণ | জুন ০৮, ২০২০ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২০৪ বার

তোফাজ্জেল হোসেন,বাউফল(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর বাউফল হেলথ কেয়ার ডায়াগনষ্টিক সেন্টার এ্যান্ড ক্লিনিকের এক চিকিৎকের বিরুদ্ধে নারী স্টাফকে যৌন হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই চিকিৎসকের নাম ডাঃ মোঃ শাহ আলম (৬৫)। তিনি এক সময় বাউফল স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসাবে চাকরী করতেন। বর্তমানে তিনি ওই ডায়াগনস্টিক সেন্টার এ্যান্ড ক্লিনিকের এনেসথেসিয়ার চিকিৎসক হিসাবে কাজ করছেন। তার বাড়ি উপজেলার দাশপাড়া ইউনিয়নের দাশপাড়া গ্রামে।
অভিযোগ রয়েছে, পৌর শহরের হাসপাতাল রোড এলাকার বাউফল হেলথ কেয়ার ডায়াগনষ্টিক সেন্টার এ্যান্ড ক্লিনিকের নারী স্টাফকে (৩৫) ওই ডায়াগনষ্টিক সেন্টার এ্যান্ড ক্লিনিকের ডাঃ মোঃ শাহ আলম বেশ কিছু দিন ধরে যৌন হয়রানি করছেন। তাকে বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাব দেন। কিন্তু ওই নারী স্টাফ (ফিজিশিয়ান) তার কথায় রাজী না হওয়ায় ওই চিকিৎসক তাকে শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন শুরু করেন। কয়েক দিন অগে ওই চিকিৎসক নারী স্টাফকে ক্লিনিকে একটি রুমে ডেকে নিয়ে তার শরীরের আপত্তিকর সব জায়গায় হাত দেন এবং তাকে দিয়ে জোরপূর্বক শরীর ম্যাসেস করান।
ওই নারী স্টাফ অভিযোগ করেন, ওই চিকিৎসক তার প্যান্ড খুলে গোপনাঙ্গ ম্যাসেস করতে বলেন। প্রথম দিকে তিনি আপত্তি করলেও পরে নিরুপায় হয়ে সেই কাজটি করেন। এসময় ওই চিকিৎসক তাকে কুপ্রস্তা বদিলে তিনি রাজি হননি। এ ভাবে প্রতিদিন তাকে যৌন হয়রানি করা হয়। এ ঘটনা ওই ক্লিনিকের মালিক ও স্টাফরা জানলেও কেউ কোন ব্যবস্থা নেননি। বরং ওই চিকিৎসক এখন তাকে চাকুরিচ্যুত করার হুমকি দিচ্ছেন।
ওইচিকিৎসক কর্তৃক নারী স্টাফকে (ফিজিশিয়ানকে) যৌন হয়রানীর একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

Shares