আজ শনিবার , ৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

হালুয়াঘাটে রাস্তার দাবিতে মানববন্ধন মর্ডান স্পোটিং ক্লাবের দোয়া ও ইফতার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা কায়েসের ঈদ উপহার সচেতনতা মুলক স্টিকার ও মাস্ক বিতরণ করলো জনপ্রিয় সেচ্ছাসেবী সংঘঠন ত্রিশাল হেল্পলাইন আজ শফিকুল ইসলাম ভাইয়ের মৃত্যুবার্ষিকী খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় ত্রিশাল ছাত্রদলের পক্ষ থেকে ইফতার বিতরণ হালুয়াঘাটে কৃষকের ধান কাটলেন এমপি হালুয়াঘাটে কর্মহীন মানুষের মাঝে রুবেলে’র খাদ্য সামগ্রী বিতরণ! করোনাঃ মৃত্যুর মিছিলে ১৫৪ চিকিৎসক বাউফলে ডায়রিয়া আক্রান্তদের মাঝে বিনামূল্যে স্যালাইন বিতরণ বাউফলে টাকা চুরি’র ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক যুবককে কুপিয়ে জখম মৃত্যুপুরী ভারত শ্মশানে জায়গা না থাকায় গণচিতা ভারতে লুকানো হচ্ছে কোভিডে মৃতের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে মৃত্যু ও শনাক্ত সংখ্যা বাউফলে ভ্রাম্যমান দুধ, ডিম ও মাংস বিক্রয়ে ব্যাপক সাড়া

বৈধ লাইসেন্সের আড়ালে অবৈধ অস্ত্রের ব্যবসা ॥ আটক-১ ৮টি অস্ত্র ও ১ হাজার ৬০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার

প্রকাশিতঃ ৯:২২ অপরাহ্ণ | জুন ১৬, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৯৭ বার

এস.এম.মনির হোসেন জীবন ॥ বৈধ লাইসেন্সের আড়ালে অবৈধ অস্ত্র মজুত ও দেশের জলদস্যুদের কাছে সেইসব অস্ত্র বিক্রি করার অভিযোগে মো. বাবুল মিয়া (৫৭) নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি)। গ্রেফতার বাবুল মিয়া মেসার্স নেত্রকোনা আর্মস কোং এর স্বত্ত্বাধিকারী।
শুক্রবার দুপুরে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে সিটিটিসি’র প্রধান মনিরুল ইসলাম এ সব তথ্য জানান।
তিনি বলেন, গত ১১ জুন মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে মো. বাবুল মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে ১টি পিস্তল, একটি রিভলবার ও ১২৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।
সিটিটিসি প্রধান মনিরুল ইসলাম বলেন, বাবুল মিয়া তাকে গ্রেফতারের সময় উদ্ধারকৃত অস্ত্রের কোনও কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। এরপর ১৪ জুন ময়মনসিংহের চুরখাইতে তার গ্রামের বাড়িতে অভিযান চালায় সিটিটিসি। তার বাড়ির মাটির নিচ থেকে কাগজপত্রবিহীন আরও ৮টি অস্ত্র ও ১ হাজার ৬০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।
তিনি আরো বলেন, ধৃত বাবুল মিয়া লাইসেন্সধারী বৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ী। তবে তার দোকানে কেবল একটি বৈধ অস্ত্র আছে দীর্ঘদিন ধরে। তাও বিক্রি হয় না। অনেকদিন তার রেজিস্টারে কোনও অস্ত্রের বেচাকেনা নেই। তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের রেজিস্টারেও বৈধ লাইসেন্স বিক্রির কোনও রেকর্ড নেই।
সিটিটিসি প্রধান মনিরুল ইসলাম বলেন, মোহাম্মদ আলী বাবুলের আগ্নেয়াস্ত্রের বৈধ ডিলারশিপ থাকলেও বেশি মুনাফার লোভে দীর্ঘদিন ধরে সে অবৈধ উপায়ে অস্ত্র বেচাকেনা করে আসছিল। ময়মনসিংহ ,রাজশাহী, চট্টগ্রাম ও খুলনার কয়েকজন বৈধ আগ্নেয়াস্ত্র ডিলারের সঙ্গে তার অবৈধ অস্ত্র কেনাবেচার তথ্য পাওয়া গেছে। বাবুলের বাড়িতে উদ্ধারকৃত অস্ত্রের সিংহভাগ খুলনার ডিলারের মাধ্যমে সুন্দরবনের জলদস্যুদের হাতে পৌঁছানোর পরিকল্পনা করা হয়েছিল।
মনিরুল ইসলাম বলেন, গত ১৫ জুন ডা. মো. জাহিদুল আলম কাদিরকে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে গ্রেফতার করে সিটিটিসি। এরপর ৩ জুন তার স্ত্রী মাসুমা আখতারকে গাবতলী এলাকা থেকে অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে ডা. জাহিদুরের ময়মনসিংহের বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করে পুলিশ। জাহিদের স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ অস্ত্রের বৈধ ডিলার ও অবৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ীদের তালিকা পায়, যাদের কাছ থেকে তারা অস্ত্রগুলো উদ্ধার করে। এরই ধারাবাহিকতায় বাবুল মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে বনানী থানায় মামলা হয়েছে।

Shares