আজ শুক্রবার , ২৫শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

বাউফলে ৫ হাজার মিটার অবৈধ বাঁধা জাল জব্দ ৫ বছর পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিজারিয়ান কার্যক্রম শুরু জনগনের সেবক হতে চাই- অধ্যক্ষ পিকু জনগনের সেবক হতে চাই- অধ্যক্ষ পিকু হালুয়াঘাটে আশার আলো’র নির্বাচন! কাঞ্চন সভাপতি, আলী হোসেন সম্পাদক ব্যক্তিগত কারণে আত্মগোপনে ছিলেন ত্ব-হা: ডিবি হালুয়াঘাটে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান উপলক্ষে প্রেস ব্রিফিং হালুয়াঘাটে বাসের চাপায় পিষ্ট হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী নিহত একদিনে আরও ৬০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৯৫৬ ময়মনসিংহে নিখোঁজ শিক্ষার্থীর লাশ পাওয়া গেল টয়লেটের ট্যাংকে বাউফলে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ ময়মনসিংহের ত্রিশালে সাংবাদিক এনামুল ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া মাহফিল মা দিবসের শুভেচ্ছা ময়মনসিংহের এিশালে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি ও দীর্ঘায়ু কামনায় ইফতার হালুয়াঘাটে আরব আলী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৬ শত মানুষ পেল ঈদ উপহার

বাউফলে মান্তা পরিবারের শিশুদের ঈদ আছে কিন্তু আনন্দ নেই

প্রকাশিতঃ ৯:৫১ অপরাহ্ণ | জুন ০২, ২০১৯ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২১৫ বার

বাউফল(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি: প্রতি বছর মুসলমানদের ঘরে ঈদ আনন্দ আসে আবার চলে যায়। কিন্তু পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কালাইয়া ইউনিয়নের বগি তুলাতলা বাজার এলাকায় বসবাসরত মান্তা পরিবারের অসহায় শিশুদের ঈদ আছে কিন্তু আানন্দ নেই। শতাধিক মান্তা শিশু রয়েছে এ এলাকায়। তাঁদের প্রতি তাকিয়ে দেখারও যেন কেই নেই। তাদের ঈদ আনন্দের কথাও কারো ভাবনায় নেই। কেই জানতেও চায় না কিভাবে কাটে তাদের ঈদ আনন্দ। সরকারি পর্যায়ে খোঁজখবর নেয়াতো দুরের কথা দেখা মিলছে না কোন বেসরকারি সংস্থার সাহায্য সহযোগীতার। ঈদে সবাই পরিবারের সকলকে নিয়ে ঈদের আনন্দ খুিশ খাগাভাগি করে নেবে। নতুন পোশাক পড়ে আনন্দ ভাসবে। তখন তোমরা(মান্তা পরিবারের শিশুরা) কোথায় পাবে নতুন কাপড় সরেজমিনে বগি এলাকার মান্তা পরিবারের শিশুদের কাছে এমন প্রশ্ন করলে শিশু সিমা(৯), পাখি(৭),সোনিয়া(১১), মুন্নি(১০) ও জয়নবসহ(১২) অনেকে হতাশা জড়িত কন্ঠে বলে, আমারা গরীব তাই আমাদের নতুন কাপড় দেয়ার কেই নেই।বাবার আয়ে সংসার চলে না। ঈদে নতুন কাপড়ও দিতে পারে না। তাই আমাদের ঈদ আনন্দ হয় না। মান্তা শিশুরা জানায়, নতুন পোশাক নেই তাদের। পুরাতন কাপড় দিয়েই কাটিয়ে দেবে খুশির ঈদ । ঈদে সেমাই বা ফিন্নি জুটবে কিনা তাও নিশ্চিত নয়। এ সব কোমলমতি শিশুদের দিকে হাত বাড়ায়নি কেউ । এবার ঈদে কেউ তাদের পাশে দ^াড়াবে কি না তাও জানা নেই।
মান্তা পরিবারের ষাটোর্ধ বৃদ্ধ হাশেম সরদার জানান, সারা বছরই দুবেলা পেট ভরে খেতে পাওয়াই তাঁদের এক পরম সৌভাগ্য। সেখানে তাঁদের নতুন জামা কাপড় স্বপ্নের মত। তাঁদের কাছে ঈদ যেন নতুন চাঁদ দেখার মাঝেই সীমাবদ্ধ। ঈদের দিন আর বছরের অন্যান্য দিন প্রায় একই।
দায়িত্ব প্রাপ্ত বাউফল উপজেলা নির্বাহি অফিসার শুভ্রা দাস বলেন, এরকম সম্প্রদায়ের কথা শুনেছি। খোঁজখবর নিয়ে সাধ্যমত সাহায্য সহযোগীতা করা হবে।

Shares