আজ শুক্রবার , ২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

হালুয়াঘাটে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু ওজনে ধান বেশী নেয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ নালিতাবাড়ীতে মাংস বিক্রেতাদের জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত নালিতাবাড়ীতে অগ্নিকাণ্ডে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ বসতঘর পুড়ে ক্ষয়ক্ষতি “মুক্তিযুদ্ধে হালুয়াঘাট” গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন ও প্রকাশনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত প্রকল্পের পাওনা টাকা দাবী: ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে হামলার অভিযোগ “মুক্তিযুদ্ধে হালুয়াঘাট” গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন ও প্রকাশনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত নালিতাবাড়ীর মাদক ব‍্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব হালুয়াঘাটে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত শেরপুরে স্বামী পরিত্যক্তা তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ: গ্রেফতার এক নালিতাবাড়ীতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন নালিতাবাড়ীতে র‍্যাবের হাতে বিদেশী মদসহ যূবক গ্রেফতার তিনানী বাজার থেকে সয়াবিন তেল জব্ধ,লাখ টাকা জরিমানা নালিতাবাড়ী প্রতিবন্ধী শিশু ধর্ষণের অভিযোগে একজন আটক নালিতাবাড়ীতে গতি রোধ করে গরু ব্যবসায়ীর উপর বিজিবি’র গুলি, আহত তিন

ময়মনসিংহে দোকান দখল, মার্কেট মালিকের নামে মিথ্যা মামলা

প্রকাশিতঃ ৮:২৭ অপরাহ্ণ | মার্চ ১৩, ২০১৯ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২৬২ বার

স্টাফ রিপোর্টার, ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহ নগরীর সি.কে ঘোষ রোড এলাকায় অবস্থিত হারুন টাওয়ার মার্কেটে প্রকাশ্যে ককটেল ফাটিয়ে ত্রাশ সৃষ্টি করে অবৈদভাবে একটি দোকান কোঠা দখল ও লুটপাট করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে নিজেদের দোষ আড়াল করতে উল্টো মার্কেট মালিক রোটারিয়ান গোলাম আম্বিয়া হারুনের নামে দুটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেছেন অবৈধ দখলদার আব্দুর রহমান। তাকে সহায়তা করেছেন নগরীর কিছু চিণ্হিত সন্ত্রাসী ও কতিপয় ব্যবসায়ীরা।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি দুপুরে নগরীর সি.কে ঘোষ রোডে অবস্থিত হারুন টাওয়ার মার্কেটে এই ঘটনায় ঘটে। তবে এ ঘটনায় অবৈধ দখলদার আব্দুর রহমানের বিরুদ্ধে পুলিশ কোন ব্যবস্থায় নেয়নি বলে অভিযোগ করেছেন মার্কেট মালিক, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক রোটারিয়ান মো. গোলাম আম্বিয়া হারুন।

অন্যদিকে জানা যায়, দোকানটি দখলের আগে নগরীর সি.কে.ঘোষ রোডে অবস্থিত ওই মার্কেটের সামনে ব্যবসায়ীদের নিয়ে একটি মানববন্ধন করেন অভিযুক্ত আব্দুর রহমান। পরে দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে বেশ কিছু বহিরাগত সন্ত্রাসী নিয়ে মার্কেটের ভেতরে প্রবেশ করেন তিনি। এরপর ধারালো ইলেকট্রিক কাটার মেশিন দিয়ে মার্কেটের ১৭ নম্বর দোকান কোঠার তালা কেটে অবৈদভাবে দখলে করে নেন বলে অভিযোগ করেন মার্কেটের মালিক রোটারিয়ান মো. গোলাম আম্বিয়া হারুন।

এ বিষয়ে মার্কেট মালিক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হারুন অভিযোগ করে আরও বলেন, আব্দুর রহমান তার ভাড়াটিয়া নন, সে অবৈধ দখলদার, অনুপ্রবেশকারী এবং মার্কেটে বিশৃংখলা সৃষ্টিকারী। তিনি বহিরাগত সন্ত্রাসী ডেকে এনে আমার মার্কেটের ১৭ নং দোকান কোঠা জোড়পূর্বক দখল করেছেন। আমাকে বেকায়দায় ফেলতে এবং আমি যেন তার বিরুদ্ধে কোন আইনি ব্যবস্থা নিতে না পারি সে জন্য আমার নামে উল্টো একটি চুরি ও মারধরের মিথ্যা অভিযোগ এনে থানায় আলাদা দুটি মামলা করেছেন আব্দুর রহমান। বর্তমানে আমি জামিনে আছি।

মার্কেট মালিক হারুন আরও বলেন, এর আগেও আব্দুর রহমান কৌশলে (তার ১৭ নম্বর) দোকান কোঠাটি দখলের জন্য (গত ১০ অক্টোবর ২০১৬ সালে) ময়মনসিংহের সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে দরখাস্ত করলে তিনি (হারুন) জেলা জজ আদালতে আপীল করেন। জেলা জজের এক আদেশে আব্দুর রহমানের সে কৌশলও ভেস্তে যায়। পরে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি প্রকাশ্য দিনের বেলায় জোড়পূর্বক ( হারুনের) দোকান কোঠা দখল করে নেন আব্দুর রহমান। এর আগে ওই এলাকায় কয়েকটি ককটেল বিস্ফোড়নের শব্দ শোনা যায় বলেও দাবী করেন রোটারিয়ান গোলাম আম্বিয়া হারুন।

এদিকে হারুনের নামে মামলা থাকায় ঘটনার পর তিনি প্রতিনিধির মাধ্যমে কোতুয়ারী মডেল থানায় অভিযোগ প্রেরন করলেও পুলিশ তার অভিযোগ আমলে নেয়নি বলেও অভিযোগ করেন এই ব্যবসায়ী।

Shares