আজ সোমবার , ২১শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

জনগনের সেবক হতে চাই- অধ্যক্ষ পিকু জনগনের সেবক হতে চাই- অধ্যক্ষ পিকু হালুয়াঘাটে আশার আলো’র নির্বাচন! কাঞ্চন সভাপতি, আলী হোসেন সম্পাদক ব্যক্তিগত কারণে আত্মগোপনে ছিলেন ত্ব-হা: ডিবি হালুয়াঘাটে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান উপলক্ষে প্রেস ব্রিফিং হালুয়াঘাটে বাসের চাপায় পিষ্ট হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী নিহত একদিনে আরও ৬০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৯৫৬ ময়মনসিংহে নিখোঁজ শিক্ষার্থীর লাশ পাওয়া গেল টয়লেটের ট্যাংকে বাউফলে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ ময়মনসিংহের ত্রিশালে সাংবাদিক এনামুল ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া মাহফিল মা দিবসের শুভেচ্ছা ময়মনসিংহের এিশালে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি ও দীর্ঘায়ু কামনায় ইফতার হালুয়াঘাটে আরব আলী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৬ শত মানুষ পেল ঈদ উপহার হালুয়াঘাটে রাস্তার দাবিতে মানববন্ধন মর্ডান স্পোটিং ক্লাবের দোয়া ও ইফতার

নালিতাবাড়ীতে স্বামীর হাতে স্বামী খুন॥ খুনি আটক

প্রকাশিতঃ ৯:৪৯ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৯ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২৯৮ বার

নালিতাবাড়ী থেকে লাল মোঃ শাহজাহান কিবরিয়াঃ
নালিতাবাড়ী উপজেলার খুজিউরা গ্রামে প্রথম স্বামী কালু মফিজুলের হাতে নৃশংসভাবে খুন হয়েছে দ্বিতীয় স্বামী বাবুল । সোমবার গভীর রাতে এ খুনের ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ ঘাতক স্বামীকে আটক করেছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, প্রায় ১৪ বছর আগে খুজিউরা গ্রামের মৃত তোফাজ্জল হোসেনের কন্যা শহিদার (২৭) বিয়ে হয় পৌর শহরের গড়কান্দা মহল্লার আমির হোসেনের পুত্র কালু মফিজুলের (৩৫)। কালু পেশায় একজন রিকশাচালক। সংসার জীবনে তাদের ময়না নামে ১১ বছরের একজন কন্যা ও সজীব নামে ৬ বছরের একজন পুত্র রয়েছে। কালু বছরের প্রায় বেশিরভাগ সময় ঢাকায় মানিক নগর বস্তিতে থেকে রিকশা চালাতো। এ সময় তার পরিচয় হয় আরেক রিকশা চালক একই উপজেলার কোন্নগর গ্রামের আরমান আলীর পুত্র বাবুুেলর (৩৫)। বাুবলও বিবাহিত এবং দু’ সন্তানের জনক। দু’জনে মাঝে গড়ে উঠে সখ্যত্ া। মাঝে মাঝেই বাবুল কালুর সাথে কালুর বাড়িতে বেড়াতে আসতো। এই সুযোগে বাবুলের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে উঠে কালুর স্ত্রী শহিদার। এক পর্যায়ে প্রায় ১ মাস আগে শহিদা প্রথম স্বামী কালুকে তালাক দিয়ে বাবুলকে বিয়ে করে। সন্তানদের কালুর বাড়িতে রেখে বসবাস শুরু করে খুজিউরা গ্রামের মামা মোস্তফার বাড়িতে। ২৫ ফেব্রুয়ারী দিবাগত রাতে ক্ষুব্ধ কালু স্ত্রী শহিদাকে খুন করার উদ্দেশে শহিদার বাড়ির সিম গাছের ঝোঁপে উৎপেতে থাকে। রাত দেড়টার দিকে শহিদা ও দ্বিতীয় স্বামী বাবুল প্রকৃতির ডাকে ঘর থেকে বের হলে, কালু স্ত্রীকে ছুরি দিয়ে আঘাতের চেষ্টা করে। এ সময় দ্বিতীয় স্বামী বাবুল তাকে রক্ষা করতে এলে সে বাবুলকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে। স্ত্রী শহিদা কালুকে গলায় ঝাপটে ধরে চিৎকার শুরু করলে, আশেপাশের লোকজন কালুকে বেঁধে রেখে থানায় খবর দেয় এবং বাবুলকে নিয়ে হাসপাতালের পথে রওয়ানা দেয়। পথেই বাবুল মারা যায়। পরে পুলিশ কালুকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে বাবুলের ভাই বাদি হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

Shares