আজ বুধবার , ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

বাউফলে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ বাউফল উপজেলা ও পৌর সেচ্ছাসেবক দলের আহব্বায়ক কমিটি ঘোষণা বাউফলে ইউএনও’র বিদায়ী সংবর্ধনা নালিতাবাড়ীতে জেলা শিক্ষা অফিসারের বিদ্যালয় পরিদর্শন বাউফলে বিএনপি’র ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত বাউফলে ছেলের বিচার চেয়ে বাবা মায়ের সাংবাদিক সম্মেলন বাউফলে জাতীয় মৎস সপ্তাহ শুরু হালুয়াঘাটে বজ্রপাতে মৃত্যু! বাবার লাশের পাশে দেড় বছরের শিশু ‘নুসাইবা’ হালুয়াঘাটে নির্মাণের বছরেই বক্স কালভার্ট ধ্বস! বাউফলে বিএনপি’র চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া-মোনাজাত ভিক্ষের টাকা গণনা করছিলো ভিক্ষুক। ইমাম বাসের চাপায় মৃত্যু ঐ ভিক্ষুকের শোক দিবসে হালুয়াঘাটে বিজিবি’র ত্রাণ বিতরণ বাউফলে সফিউল বারী বাবু’র মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া-মোনাজাত করোনা টেস্ট করাতে অনিহা হালুয়াঘাটে করোনায় আক্তান্ত হয়ে ৯৬ বছরের বৃদ্ধের মৃত্যু। মোট মৃত্যু-৭

নির্বাচনে নওয়াজের দলকে চাপে রাখছে সেনাবাহিনী

প্রকাশিতঃ ৬:৩৪ অপরাহ্ণ | মে ৩০, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২৭০ বার

২৫ জুলাই, পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনের মাত্র কয়েক সপ্তাহ বাকি। নির্বাচনকে সামনে রেখে চলছে আজীবনের জন্য অযোগ্য ঘোষিত সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের পক্ষে-বিপক্ষে আন্দোলন।

এ নির্বাচনে এরই মধ্যে হস্তক্ষেপের অভিযোগ উঠেছে সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে। ভোটের মাঠে নওয়াজ শরিফের দল পিএমএল-এনকে চাপে রাখার কৌশল নিয়েছে সেনাবাহিনী। এছাড়া সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে কঠোরভাবে গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে।

‘ভাড়াটে বা পাতি’ নেতাদের দিয়ে পাকিস্তান শাসনের পরিকল্পনা রয়েছে সেনাবাহিনীর। বিবিসির সোমবারের এক প্রতিবেদনে এসব কথা বলা হয়েছে। নির্বাচনের আগে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও অবাধ সাংবাদিকতাকে কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করছে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী। এর অংশ হিসেবে চাপে পড়েছে দেশটির সবচেয়ে পুরনো ও স্বনামধন্য পত্রিকা ডন। পত্রিকাটির সরবরাহ আটকে দেয়া হয়েছে দেশের বহু স্থানে।

সেনাবাহিনীর রিয়েল এস্টেট কোম্পানি ডিফেন্স হাউজিং অথরিটি (ডিএইচএ) নিয়ন্ত্রিত বিশাল এলাকাগুলোয় বন্ধ রয়েছে পত্রিকাটির সার্কুলেশন। এছাড়া বেসামরিক জনগণের বসবাস আছে এমন সেনাঘাঁটি এলাকায়ও ডন পত্রিকার প্রবেশ নিষেধ। শুধু ডন এ পরিস্থিতিতে নেই। মার্চে পাকিস্তানের সবচেয়ে বড় টিভি চ্যানেল জিও সেনা নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোয় ব্যাপকভাবে ক্যাবল অপারেটরদের ব্লকের শিকার হয়।

দুটো সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে এই আচরণ নওয়াজ শরীফ ও শক্তিশালী সেনাবাহিনীর মধ্যে বর্ধিষ্ণু স্নায়ুযুদ্ধকেই জাগিয়ে তুলছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার সমালোচনা করে নওয়াজ শরিফের দেয়া বক্তব্য প্রচারের শাস্তি হিসেবেই সেনাবাহিনী এ কাজটি করছে। পাকিস্তানি সেনাবাহিনী তার ব্যবসা সাম্রাজ্য দু’দিক থেকে আক্রমণের শিকার হতে দেখে গণমাধ্যমকে কড়াকড়িভাবে নিয়ন্ত্রণের সব চেষ্টা চালাচ্ছে।

একদিকে আজীবনের জন্য অযোগ্য ঘোষণার পর থেকে নওয়াজ শরিফ অনেক বেশি বিদ্রোহী হয়ে উঠেছেন। দুর্নীতির অভিযোগ সত্ত্বেও তার জনপ্রিয়তা কমার কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না, যেটা সেনাবাহিনীর অন্যতম উদ্দেশ্য ছিল। নওয়াজকে থামানো না গেলে সামনের নির্বাচন অংশ নিয়ে আবার তিনি ক্ষমতায় আসতে পারেন- এমন ভাবনা অস্বাভাবিক নয়। মূলত নিজেদের ব্যবসায় সাম্রাজ্য সুরক্ষার জন্য নওয়াজের দলকে আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না দেশটির সেনাবাহিনী। আর এ কারণেই তেহরিক-ই-ইনসাফ প্রধান ইমরান খানের মতো ভাড়াটে বা পাতি নেতাদের ক্ষমতায় এনে পাকিস্তান শাসন তাদের লক্ষ্য।

এদিকে সোমবার পাকিস্তানের অন্তর্বর্তী সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সাবেক প্রধান বিচারপতি নাসিরুল মুল্কের নাম ঘোষণা করেন বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসি। প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসির নেতৃত্বাধীন সরকারের মেয়াদ শেষ হবে আগামী ৩১ মে। একই দিন শেষ হবে জাতীয় পার্লামেন্টের মেয়াদও। মেয়াদ শেষ হলেই ক্ষমতা চলে যাবে অন্তর্বর্তী সরকারের হাতে।

Shares