আজ বৃহস্পতিবার , ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

বাউফলে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ বাউফল উপজেলা ও পৌর সেচ্ছাসেবক দলের আহব্বায়ক কমিটি ঘোষণা বাউফলে ইউএনও’র বিদায়ী সংবর্ধনা নালিতাবাড়ীতে জেলা শিক্ষা অফিসারের বিদ্যালয় পরিদর্শন বাউফলে বিএনপি’র ৪৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত বাউফলে ছেলের বিচার চেয়ে বাবা মায়ের সাংবাদিক সম্মেলন বাউফলে জাতীয় মৎস সপ্তাহ শুরু হালুয়াঘাটে বজ্রপাতে মৃত্যু! বাবার লাশের পাশে দেড় বছরের শিশু ‘নুসাইবা’ হালুয়াঘাটে নির্মাণের বছরেই বক্স কালভার্ট ধ্বস! বাউফলে বিএনপি’র চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া-মোনাজাত ভিক্ষের টাকা গণনা করছিলো ভিক্ষুক। ইমাম বাসের চাপায় মৃত্যু ঐ ভিক্ষুকের শোক দিবসে হালুয়াঘাটে বিজিবি’র ত্রাণ বিতরণ বাউফলে সফিউল বারী বাবু’র মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া-মোনাজাত করোনা টেস্ট করাতে অনিহা হালুয়াঘাটে করোনায় আক্তান্ত হয়ে ৯৬ বছরের বৃদ্ধের মৃত্যু। মোট মৃত্যু-৭

রোহিঙ্গা নির্যাতনের গোপন ভিডিও প্রকাশ (ভিডিও)

প্রকাশিতঃ ১০:২৮ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২৪৫ বার

অনলাইন ডেস্কঃ রাখাইন রাজ্যের উত্তরাঞ্চলের রোহিঙ্গাদের উপর চালানো জাতিগত নিধনযজ্ঞের পেছনে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর ইন্ধন রয়েছে বলে দাবি করেছে সুইজারল্যান্ডভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা ফোর্টিফাই রাইটস। এ দাবির পেছনে প্রমাণ হিসেবে সংস্থাটি বৃহ¯পতিবার একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে। সংস্থাটি জানিয়েছে, ২০১৭ সালে রোহিঙ্গা নিধনের পূর্বে এ ভিডিওটি ধারণ করা হয়েছিল। সেখানে দেখা যায়, মিয়ানমার সেনাবাহিনীর একজন সদস্য রাখাইনের স্থানীয় বাসিন্দাদের বুঝিয়ে দিচ্ছে কেন ও কীভাবে এ অঞ্চল থেকে রোহিঙ্গাদের উচ্ছেদ করা হবে। এ থেকে স্পষ্ট হয় যে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযান পরিচালনার পরিকল্পনা করে আসছিল দেশটির সেনাবাহিনী। প্রকাশিত মূল ভিডিওটির দৈর্ঘ্য ৮ মিনিটেরও অধিক। সেখানে একজন সেনাসদস্যকে স্থানীয়দের রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে উস্কে দিতে দেখা যায়। ওই সদস্য বলতে থাকে, রোহিঙ্গারা আস্তে আস্তে রাখাইন এবং পর্যায়ক্রমে সমগ্র মিয়ানমার দখল করে নেবে।
তাদের উচ্চ জন্মহারকে দেশের জন্য হুমকি বলেন তিনি।

এ ভিডিও ফুটেজে থাকা প্রমাণের ভিত্তিতে ফোর্টিফাই রাইটসের প্রধান কার্যনির্বাহী কর্মকর্তা ম্যাথিউ স্মিথ বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবশ্যই দ্রুততার সঙ্গে এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। যেভাবেই হোক রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রমাণ সংগ্রহ করে অপরাধীদের বিচারের মুখোমুখি করতে হবে। তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গা নির্যাতনের বিচার নিশ্চিতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অনর্থক নিষ্ক্রিয়তার কোনো কারণ নেই। মিয়ানমারের বর্তমান অবস্থা যত দ্রুত সম্ভব আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে উত্থাপন করা প্রয়োজন। https://www.youtube.com/watch?v=pebrk29ZJW8

Shares