আজ শনিবার , ৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

হালুয়াঘাটে রাস্তার দাবিতে মানববন্ধন মর্ডান স্পোটিং ক্লাবের দোয়া ও ইফতার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা কায়েসের ঈদ উপহার সচেতনতা মুলক স্টিকার ও মাস্ক বিতরণ করলো জনপ্রিয় সেচ্ছাসেবী সংঘঠন ত্রিশাল হেল্পলাইন আজ শফিকুল ইসলাম ভাইয়ের মৃত্যুবার্ষিকী খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় ত্রিশাল ছাত্রদলের পক্ষ থেকে ইফতার বিতরণ হালুয়াঘাটে কৃষকের ধান কাটলেন এমপি হালুয়াঘাটে কর্মহীন মানুষের মাঝে রুবেলে’র খাদ্য সামগ্রী বিতরণ! করোনাঃ মৃত্যুর মিছিলে ১৫৪ চিকিৎসক বাউফলে ডায়রিয়া আক্রান্তদের মাঝে বিনামূল্যে স্যালাইন বিতরণ বাউফলে টাকা চুরি’র ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক যুবককে কুপিয়ে জখম মৃত্যুপুরী ভারত শ্মশানে জায়গা না থাকায় গণচিতা ভারতে লুকানো হচ্ছে কোভিডে মৃতের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে মৃত্যু ও শনাক্ত সংখ্যা বাউফলে ভ্রাম্যমান দুধ, ডিম ও মাংস বিক্রয়ে ব্যাপক সাড়া

সাংবাদিক নদী হত্যা মামলার আসামি ‘মিলন’ আটক

প্রকাশিতঃ ৪:৫০ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০৯, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৩০৭ বার

এম এ প্রিন্স, রংপুর থেকেঃ বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আনন্দ টিভির পাবনা প্রতিনিধি সুবর্ণা আক্তার নদী (৩০) হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি শামসুজ্জামান মিলনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। মিলন পাবনা পৌরসভার গোপালপুরের মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে। তাকে কখন কোন এলাকা থেকে আটক করা হয়েছে সে ব্যাপারে জানাতে রোববার (৯ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে র‌্যাব। এর আগে মামলার আরেক আসামি আবুল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। এদিকে, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) অরবিন্দ সরকার জানান, র‌্যাবের পক্ষ থেকে আসামিকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করার পর তাকে আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করা হবে। এর আগে মঙ্গলবার (২৮ আগস্ট) রাতে পাবনা পৌরসভার রাধানগর মহল্লায় আদর্শ গার্লস হাইস্কুলের সামনে ভাড়া বাসার সামনে কয়েকজন দুর্বৃত্ত নদীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। এ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এ ঘটনায় বুধবার (২৯ আগস্ট) বিকেলে পাবনা সদর থানায় মামলা করেন নদীর মা মর্জিনা বেগম। এতে ইড্রাল ফার্মাসিউটিক্যালস (ইউনানি) ও শিমলা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল হোসেন, তার ছেলে ও নদীর সাবেক স্বামী রাজীব হোসেন এবং তাদের অফিস সহকারী শামসুজ্জামানের নাম উল্লেখ করে আট-নয়জনকে আসামি করা হয়।

Shares