আজ বৃহস্পতিবার , ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাচনে মোশারফ, ফরিদ, আশুরা বিজয়ী গরীবের আশার বাতিঘর হাজী মোশারফ হালুয়াঘাটে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি পুঁততে গিয়ে মৃত্যু-১, আহত-১ জাতীয় ভাবে”স্বপ্নজয়ী মা” নির্বাচিত হলেন জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জের অবিরণ নেছা ৬১০৮ ভোটের ব্যবধানে হামিদ বিজয়ী। শেখ রাসেল ও মনোয়ারা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হালুয়াঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনঃ প্রবীণে প্রবীণে লড়াই এম্বুলেন্সে করে মাদক পাচারকালে ২৪০ বোতল ভারতীয় মদসহ একজন আটক এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার

এ কোন্ সকাল—পুষ্পিতা চট্টোপাধ্যায় (কলকাতা)

প্রকাশিতঃ ৯:২৩ অপরাহ্ণ | জুন ০৭, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৪৯৬ বার

বেসামাল হয়ে যেতে যেতে নিজেকে সামলে নিলাম।
মায়ের ইউ. এস. জি রিপোর্টে সিরোসিস অব্ লিভার !
মনের আকাশে কালো মেঘ জমে উঠেছিল মুহূর্তে
রক্তে রক্তে সর্বনাশের দুন্দুভি !
চোখের কোনায় চিকচিক করে উঠছিল
সব হারাবার যন্ত্রণা ।
পায়ের তলার মাটি ঝিরঝির !
ভিতর থেকে মায়ের নাম ডাকল
……বিজয়া গাঙ্গুলী …………বিজয়া গাঙ্গুলী

পূর্ণিমার চাঁদের মতো মুখ নিয়ে ডাক্তার বাবুর সামনে দাঁড়াতেই ডঃ অরূপ গুছাইত একমুখ হেসে
মায়ের সঙ্গে কথা বলতেই………
ছলছল ঝরণার মতো উচ্ছসিত মায়ের
মুখে যেন জ্যোৎস্নার খিলখিলানি
সন্তান সুখ ! এক অপার নির্ভরতা!
রোগ সারবার বিশ্বাস !
এ দৃশ্য আমি বারবার দেখেছি ••••মা ও সন্তানের মিলন !
যেন রোগ দেখাতে নয় ••••মা এসেছে ছেলের বাড়ি !

নার্সিংহোম!

মায়ের গলায় গুনগুন গীতবিতান …জগন্ময় মিত্র
গলায় নলের খোঁচায় যেন মণিমুক্তো বিহীন।
মনখারাপের আলোয় মা নিজেকে ভাবে হলুদ পাখি

অন্ধেরও জীবনে আলো আছে মাগো………
এক আকাশ খুশী নিয়ে মা গান শুনতে থাকে
একটার পর একটা ………
আমি দুরন্ত বৈশাখী ঝড়, তুমি যে বহ্নিশিখা ……
সাতটি বছর পরে ………
কতদিন দেখিনি তোমায় ……

মায়ের অনন্ত আশীর্বাদে আমার দুই চোখ
চিকচিক করে, নাকের পাটা চিনচিন
দুইহাতের আড়াল দিয়ে প্রদীপে ঢালছি তেল
এবেলা ওবেলা সেবেলা পুষ্টিকর যা কিছু বারেবারে
শিশুর মতো বকি, ভোলাই ……
ঐ দ্যাখো রূপবতী তারারা টিপটিপ
ঐ দ্যাখো চাঁদ গদগদ
খাও মা খাও মা ………

মাঝে মাঝে প্রদীপের শিখা ফুঁসে ওঠে
খাইয়ে কি মেরে ফেলবি? কত খাব?
মাকে শোনাই আমার চোখের কুয়াশাকথা
দুধে তিনটে রুটি চটকালে
মাকে বলি একটা রুটি মাত্র
না খেলে লিভার শক্তিশালী হবে কি করে?

মা চাঁছিপুছি খেয়ে নিলে
গাল টিপে আদর মাখাই
এই তো কেমন ভালো মেয়ে
লক্ষী সোনা মা আমার
•••••••••••
মাকে আরো আয়ু দাও ভগবান
মাকে আরো আরো আরো দাও প্রাণ
•••••••••••
ওষুধ পথ্যি আর ভালবাসার অবিশ্রান্ত যত্নে
আমার সদ্য বাবা হারা বিধবা মায়ের মুখে
জমে ওঠা দীর্ঘ পথের ক্লান্তি জরা বলিরেখা
সব যেন ঝলমলে রোদ্দুর হয়ে উঠছিল
•••••••••••
স্মৃতিকথার আসর সাজাত মা
তার রূপকথাময় ছেলেবেলার বান্ধবীর গল্প
ঝিকিমিকি জোনাকির ঝাঁকে লুকোচুরি খেলার গল্প
এমনই এক পূর্ণিমা সন্ধ্যায়••••••স্বচ্ছ নদীর জলে
একটা আস্ত চাঁদ ডুব মারলে তিন তালির যাদুতে
সোনামুখী নৌকো ভেসে ওঠার কাহিনী

গল্প শুনতে শুনতে অপার বিস্ময়ে
মায়ের মুখ দেখতে দেখতে ডুব দিয়েছি
কখন ঘুমের গভীরে টের পাইনি
•••••••••••
মা দেখেছিল পরিশ্রান্ত ক্লান্ত মেয়েটির মুখ
আহা মায়াবতী ঘুমোক, ঘুমোক
••••••••••••
কেন মা আমাকে ডাকল না ! এর নাম কি নিয়তি !
মরণ ঘুম ভাঙল তখন সর্বনাশের সকাল !

পড়ে গিয়ে মায়ের হাত ভেঙেছিল ।
তারপরের সাতদিন মায়ের জীবনের
বিভীষিকাময় পরিসমাপ্তি!

Shares