আজ মঙ্গলবার , ১১ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

ময়মনসিংহের ত্রিশালে সাংবাদিক এনামুল ফাউন্ডেশনের ইফতার ও দোয়া মাহফিল মা দিবসের শুভেচ্ছা ময়মনসিংহের এিশালে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি ও দীর্ঘায়ু কামনায় ইফতার হালুয়াঘাটে আরব আলী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৬ শত মানুষ পেল ঈদ উপহার হালুয়াঘাটে রাস্তার দাবিতে মানববন্ধন মর্ডান স্পোটিং ক্লাবের দোয়া ও ইফতার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা কায়েসের ঈদ উপহার সচেতনতা মুলক স্টিকার ও মাস্ক বিতরণ করলো জনপ্রিয় সেচ্ছাসেবী সংঘঠন ত্রিশাল হেল্পলাইন আজ শফিকুল ইসলাম ভাইয়ের মৃত্যুবার্ষিকী খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় ত্রিশাল ছাত্রদলের পক্ষ থেকে ইফতার বিতরণ হালুয়াঘাটে কৃষকের ধান কাটলেন এমপি হালুয়াঘাটে কর্মহীন মানুষের মাঝে রুবেলে’র খাদ্য সামগ্রী বিতরণ! করোনাঃ মৃত্যুর মিছিলে ১৫৪ চিকিৎসক বাউফলে ডায়রিয়া আক্রান্তদের মাঝে বিনামূল্যে স্যালাইন বিতরণ বাউফলে টাকা চুরি’র ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক যুবককে কুপিয়ে জখম

ফেসবুকের পাসওয়ার্ড না দেয়ায় ১৪ মাসের কারাদণ্ড

প্রকাশিতঃ ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০২, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ২৬৮ বার

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:ফেসবুক পাসওয়ার্ড না দেয়ায় এক ব্যক্তিকে ১৪ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। যুক্তরাজ্যে এক স্কুলছাত্রী নিহতের তদন্ত চলাকালে সন্দেহভাজন স্টিফেন নিকোলসন নামের এক ব্যক্তিকে কারাদণ্ড দেয় আদালত।

যুক্তরাজ্যে ভিত্তিক গণমাধ্যম ‘দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট’র বরাত দিয়ে জানিয়েছে খালিজ টাইমস জানিয়েছে চলতি বছরের ২৬ জুলাই ছুরিকাঘাতে নিহত হয় লুসি ম্যাকহাফ নামের এক ১৩ বছর বয়সী স্কুলছাত্রী। এই ঘটনার আগে নিকোলসন তাকে কোনও মেসেজ পাঠিয়েছিল কিনা দেখতে চেয়েছিল পুলিশ।

দেশটির ‘রেগুলেশন অব ইনভেস্টিগেটরি পাওয়ার অ্যাক্ট’র(আরআইপিএ) অধীনে নিকোলসনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। মাদক সম্পর্কিত তথ্য ফাঁস হয়ে যেতে পারে বলে পুলিশকে ফেসবুকের পাসওয়ার্ড দেননি বলে যুক্তি দেখান তিনি।

কিন্তু তার এই যুক্তিকে বিচারক ‘সম্পূর্ণ অনুপযুক্ত’ বলে উল্লেখ করেন এবং মামলার গুরুত্ব বিবেচনা করে তাকে ১৪ মাসের কারাদণ্ড দেন।

আরআইপিএ’র অধীনে দেশটির পুলিশ অপরাধ তদন্তে জনগণকে ফোন ও কম্পিউটারসহ যেকোনও ইলেক্ট্রনিক ডিভাইসের পাসওয়ার্ড দিতে বাধ্য করতে পারে। এক্ষেত্রে কেউ আপত্তি জানালে তা সর্বোচ্চ দুই বছরের কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে। জাতীয় নিরাপত্তা এবং শিশু নির্যাতনের ক্ষেত্রে এটি পাঁচ বছরও হতে পারে।

Shares