আজ সোমবার , ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

রাহেলা হযরত মডেল স্কুলে প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত ত্রিশাল অনলাইন প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে ভাষা শহীদদের স্মরণে শ্রদ্ধাঞ্জলি ভাষা শহীদদের প্রতি কংশ টিভির পরিবার ও গণমাধ্যম কর্মীদের শ্রদ্ধাঞ্জলী ফুটবল ফাইনাল টুর্নামেন্টে বিজয়ী মধুপুর একাদশ স্পোটিং ক্লাব ২৮ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ময়মনসিংহ জেলার শ্রেষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার ত্রিশালের মোস্তাফিজুর রহমান হালুয়াঘাটে পিকনিকের বাস উল্টে আহত-৮ ময়মনসিংহের ত্রিশালে করোনা টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করোনাঃ হালুয়াঘাটে ভ্যাকসিন প্রদান শুরু, ১৩৬ জনের রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন হালুয়াঘাটে করোনার প্রথম টিকা নিলেন ইউ.এন.ও রেজাউল করিম বাউফলে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবিতে-পটুয়াখালীতে বিএমজিটিএ এর আলোচনা সভা বাউফলে শীতবস্ত্র পেল শীতার্তরা ফুলপুরে পালকি কমিউনিটি সেন্টার ও রেস্টুরেন্টের উদ্ভোদন করোনা ভ্যাকসিন বিতরণে হালুয়াঘাট উপজেলা প্রশাসনের আলোচনা সভা

চাহিদার শীর্ষে ৫ ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল

প্রকাশিতঃ ৯:৩৫ অপরাহ্ণ | আগস্ট ২৮, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৪১০ বার

নিউজ ডেস্ক: মোটরসাইকেল চালাতে কে না ভালোবাসে। প্রত্যেক চালকই তার মোটরসাইকেলটি সম্পর্কে জানতে চাই। আর জানতে চাই তার মোটরসাইকেলের চেয়ে নতুন কোনো মোটরসাইকেল বাজারে এসেছে কি না। তাই মোটরসাইকেল প্রেমিদের জন্য আমরা আজ আলোচনা করবো বাংলাদেশের পাঁচটি চাহিদার শীর্ষে থাকা মোটরসাইকেল নিয়ে।

টিভিএস এপাচি আরটিআর ১৬০
বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া বাইক গুলোর মধ্যে এপাচি আরটিআর অন্যতম। আরটিআর ১৬০ ফ্রন্ট এবং রেয়ার প্রায় একই রকম। ফ্রন্ট হচ্ছে ৯০/৯০-১৭ এবং রেয়ার ১১০/৮০/১৭। উভয় টায়ারই টিউবলেস টায়ার। যেহেতু উভয় টায়ার টিউবলেস তাই এর ১৭ ইঞ্চি রিমের ক্ষেত্রে উপযুক্ত। আরটিআর ১৬০ এর ইঞ্জিন ফোর স্ট্রোক, এয়ার কুল্ড, সিঙ্গেল সিলিন্ডার ১৫৯.৭সিসি। এর ইঞ্জিন ১৫.২ বিএইচপি তে ৮৫০০ আরপিএম এবং ১৩.১ এনএম টর্ক এ ৪০০০আরপিএম শক্তি সমৃদ্ধ। বাইক প্রায় আরটিআর ১৫০ এর মতই ইঞ্জিন কোয়ালিটি। তাই বাইকটি কম সময়ে অনেক বেশি থ্রটল এবং স্পিড উৎপন্ন করতে পারে। আরটিআর ১৬০ তে কিক এবং ইলেক্ট্রিক উভয় স্টার্ট রয়েছে সাথে আছে ডিজিটাল ইগনিশোন। বাইকটিতে ৫ স্পিড গিয়ার ট্রান্সমিশন এবং কার্বুরেটর ইঞ্জিন সমৃদ্ধ। এই বাইকটি এই সেগমেন্টের অন্যতম পাওয়ার বুস্টার বাইক।

সুজুকি জিক্সার এসএফ মোটো জিপি
বাংলাদেশের ইয়্যাং জেনারেশন এর জন্য সুজুকি জিক্সার এসএফ মোটো জিপি সবথেকে আকর্ষনীয় বাইক । বাইকটির লুকস এবং এ্যাক্সেলেরেশন ও পাওয়ারফুল ইঞ্জিন এর জন্য আমাদের দেশে সব থেকে সাকসেসফুল বাইক । মোটরসাইকেলটির গ্র্যাফিক্স যেমন ভাল তেমনি জিক্সার লগো যেভাবে বাইকের ট্যাংকে দেওয়া হয়েছে যার কারনে আরো বেশি আকর্ষনীয় হয়ে উঠেছে। সুজুকি জিক্সার ইঞ্জিনে রয়েছে ১৫৫ সিসি ফোর স্ট্রোক সিঙ্গেল সিলিন্ডার ,২ ভাল্বভ, এয়ার কুল্ড যেটা প্রায় ১৪.৮পিএস@ ৮০০০ আরপিএম পাওয়ার এবং ১৪এনএম@ ৬০০০ আরপিএম টর্ক দিতে সক্ষম । বাইকটির ইঞ্জিনের পাওয়ার এই সেগমেন্টের সব থেকে বেশি এবং এর পার্ফমেন্সও অনেক ভাল।

বাজাজ পালসার এনএস ১৬০
বাংলাদেশের তৃতীয় মোটরসাইকেল যেটি টিভিসি এপ্যাচি আরটিআর ১৬০ এবং স্পিডার কান্ট্রিমান এর পরে লঞ্চ করা হল। বাংলাদেশের সবথেকে বেশি বিক্রিত মোটরসাইকেলটি হল পালসার ১৫০ সিসি। বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ দেখতে বেশ পেশীবহুল এবং নেকেড স্পোর্টস সেগমেন্টের বাইক। বাইকটি ইঞ্জিন পাওয়ার ১৬০ সিসি ডিটিএস-আই অয়েল কুল্ড ইঞ্জিন। ইঞ্জিনটি থেকে ১৫.৩ বিএইচপি ও ১৪.৬ এনএম টর্ক দিতে সক্ষম। এটার সামনে টেলেস্কোপ সাস্পেনশন ও পিছনে নাইট্রো মনোশক সাস্পেনশন আছে। বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ এর টায়ার গুলো এলয় হুইলস ও সামনে ২৪০মি.মি. ডিস্ক ব্রেক ও পিছনে ১৩০ মি.মি. ড্রাম ব্রেক রয়েছে। পিছনে রয়েছে ১১০ স্পেফিকেশন। এছাড়া দুটো টায়ার ই টিউবলেস। অন্যান্য ফিচার এর মধ্যে এটা দেখতে মাস্কুলার টাইপ এবং স্টাইলিশ, এর সামনের হেডলাইট কপি করা হয়েছে বাজাজ পালসার এনএস ২০০ এর প্রেডিটর স্টাইল এর এবং ফ্রেমটি প্যারিমিটার টাইপ।

নতুন রূপে হিরো এক্সট্রিম
হিরো মোটর করপোরেশনের জনপ্রিয় স্পোর্টস বাইক হিরো এক্সট্রিম। হিরো যখন হোন্ডার সঙ্গে একীভূত ছিল তখন বাজারে আসে হিরো-হোন্ডা সিবিজেড। এরপর আসে সিবিজেড এক্সট্রিম। হোন্ডা আর হিরো আলাদা হয়ে গেলেও হিরো পরবর্তীতে এক্সট্রিম সিরিজ ধরে রাখে। এই সিরিজের সর্বশেষ বাইক ছিল এক্সট্রিম স্পোর্টস। বেশ কিছুদিন এই বাইকটির উৎপাদন বন্ধ ছিল। এবার এক্সট্রিম সিরিজে নতুন বাইক আনছে হিরো। প্রিমিয়াম সেগমেন্টের এই বাইকটির মডেল হিরো এক্সট্রিম ২০০ আর। এই বাইকটি গত বছর হিরো প্রকাশ্যে আনে। অবশেষে এটি এই মাসে বাজারে আসতে চলেছে। হিরো এক্সট্রিম এবং এক্সট্রিম স্পোটর্সের সঙ্গে সাদৃশ্য রেখে নতুন ভাবে ২০০ আর ডিজাইন করা হয়েছে। এটাকে আরো স্পোটি লুক দেয়া হয়েছে। এই মডেলটি ২০০ এস কনসেপ্ট মডেল থেকে অনুপ্রাণিত। স্টাইলিশ এই বাইকটি ২০০ সিসির। এতে সিঙ্গেল সিলিন্ডার ইঞ্জিন সংযোজন করা হয়েছে। ইঞ্জিনের সর্বোচ্চ ক্ষমতা ১৮.১ বিএইচপি@৮৫০০ আরপিএম। পিক টর্ক ১৭.১এনএম@৬৫০০।

বাজাজ ডিস্কভার ১২৫
বাজাজ বাংলাদেশের ইন্ডিয়ান মোটরসাইকেল ব্র্যান্ডের মধ্যে অন্যতম । মোটরসাইকেল সেলস এর দিক থেকে বাজাজ তাদের রেকর্ড ধরে রেখেছে। বাজাজ সম্প্রিত তাদের ১২৫সিসি সেগমেন্টে নতুন বাইক লঞ্চ করেছে । আর সেটি হচ্ছে বাজাজ ডিস্কভার ১২৫সিসি। বাজাজ ডিস্কভার ১২৫ এই নতুন বাইকটিতে ইঞ্জিন আগের মতই ১২৫সিসির এর ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে । তবে ইঞ্জিনটি আগের চেয়ে অনেক বেশি রিফাইন করা হয়েছে । ইঞ্জিন ডিস্প্লেসমেন্ট হচ্ছে ১২৪.৬সিসি এবং ইঞ্জিনটি ফোর স্ট্রোক, সিংগেল সিলিন্ডার, ডিটিএস-আই, এয়ারকুল্ড ইঞ্জিন । ইঞ্জিনটি থেকে প্রায় ১৪.৭২বিএইচপি @ ৭৫০০আরপিএম ও ১১ এনএম টর্ক @ ৫৫০০ আরপিএম ক্ষমতা উৎপন্ন করতে পারে। বাজাজ ডিস্কভার ১২৫সিসি এর ফিচার্স অনেক পরিবর্তন করা হয়েছে । তবে সবচেয়ে বেশি যেই ফিচারটি নিয়ে কথা হচ্ছে তা হল এর এলইডি ডিআরএল সিস্টেম । বাইকটির হেডলাইটের সাথে এই সিস্টেম প্রথম বারের মত যুক্ত করা হয়েছে । এছাড়া টেল লাইটের ডিজাইনেও পরিবর্তন আনা হয়েছে ।

Shares