আজ বৃহস্পতিবার , ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

বাউফলে সাবেক এমপি শহীদুল আলম তালুকদারের মতবিনিময় সভা হালুয়াঘাটে নবান্নকে ঘিরে পিঠা পুলির উৎসব! কোভিড-১৯ প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে মেয়রের আহব্বান বাউফলে তারেক রহমানের জন্মবার্ষিকী পালিত বাউফলে প্রায়তঃ শিক্ষকের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া-মোনাজাত আত্মহত্যার পরও সূদের টাকার জন্য ফোন! ত্রিশালে সড়ক দূরঘটনায় একজন নিহত চার জন আহত ত্রিশালে যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত আমতলীতে মাদ্রাসা মাঠে ধান চাষ বরগুনায় ১০ দোকান পুড়ে ছাই হৃদয় হত্যাকাণ্ডে জড়িত প্রত্যেকের ফাঁসি চান পরিবার আইপিএলে ,নিঃস্ব হচ্ছে অনেক পরিবার ত্রিশাল অনলাইন প্রেসক্লাবের উদ্যোগে শাহ্ আহসান হাবীব বাবুর জন্ম দিন পালন বরগুনায় সেরা সম্পাদককে সংবর্ধনা বরগুনা বেতাগীর আলোচিত বজলু হত্যা মামলার ২ নম্বর আসামি আটক

টাঙ্গাইলে যৌতুক না পেয়ে গৃহবধুকে পুড়িয়ে হত্যা

প্রকাশিতঃ ১:৪৬ অপরাহ্ণ | আগস্ট ২৪, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ১৮৪ বার

অনলাইন ডেস্কঃ টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে যৌতুক না পেয়ে শাপলা বেগম (২২) নামে এক গৃহবধুকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার শশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। ওই গৃহবধু উপজেলার সল্লা ইউনিয়নের নরদহী চরপাড়া গ্রামের রাব্বি ইসলামের স্ত্রী ও একই গ্রামের বেল্লাল হোসেনের মেয়ে।

এলাকাবাসী জানান, উপজেলার নরদহী গ্রামের রাব্বী ইসলামের বাড়িতে মঙ্গলবার রাত্র আনুমানিক ১টার দিকে চিৎকার শুনতে পান স্থানীয়রা। তারা ঘরের ভিতরে গিয়ে দেখেন আগুনে শরীরের অর্ধক অংশ পুরে গেছে শাপলার । এসময় তার স্বামী বাড়িতে ছিলেন না। শ্বশুর-শ্বাশুড়িও ছিলো অন্য ঘরে। পরে অজ্ঞান অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্মরত  চিকিৎসক তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিক্যালে নেয়ার কথা বলেন।

পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে বুধবার রাতে চিকিংসাধীন অবস্থায় বার্ণ ইউনিটে তার মৃত্যু হয়।

এলাকাবাসী আরো জানান, আমরা যখন ঘরে ঢুকি তখন দেখি শুধু তার শরীরে আগুন, কিন্তু তার একটু পাশেই খাঁট ও পাশের আলনা ভর্তি কাপড়  রয়েছে। সেখানে কোন আগুন লাগেনি। যদি অন্য কিছুতে আগুন লাগতো তাহলে অবশ্যই খাঁট ও আলনাতে রাখা কাপড়ে আগুন লাগতো। শাপলাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে।

নিহতের মা মর্জিনা বেগম জানান, আমার মেয়েকে  প্রতিনিয়ত যৌতুকের জন্য নির্যাতন করা হতো। সে আমাকে এবং আমার ছেলের ফোনে ফোন দিয়ে সব বলতো। ঘটনার আগের দিন এনিয়ে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়।  যৌতুক না পেয়েই আমার মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে। আমি হত্যাকারীর বিচার চাই।

এ বিষয়ে কালিহাতী থানার ওসি মীর মোশারফ হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অাগুনে পুরে মৃত্যুর বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Shares