আজ সোমবার , ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাচনে মোশারফ, ফরিদ, আশুরা বিজয়ী গরীবের আশার বাতিঘর হাজী মোশারফ হালুয়াঘাটে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি পুঁততে গিয়ে মৃত্যু-১, আহত-১ জাতীয় ভাবে”স্বপ্নজয়ী মা” নির্বাচিত হলেন জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জের অবিরণ নেছা ৬১০৮ ভোটের ব্যবধানে হামিদ বিজয়ী। শেখ রাসেল ও মনোয়ারা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হালুয়াঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনঃ প্রবীণে প্রবীণে লড়াই এম্বুলেন্সে করে মাদক পাচারকালে ২৪০ বোতল ভারতীয় মদসহ একজন আটক এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার

কেন আপনার কপালে প্রেমিকা জোটে না?

প্রকাশিতঃ ১১:১৪ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১৩, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৫০৩ বার

ডেস্ক রিপোর্টঃ বহু চেষ্টার পরেও অনেক পুরুষের কপালেই প্রেমিকা জোটে না, দীর্ঘ সময় ধরে তারা রয়ে যান সিঙ্গেল। কিন্তু কেন? এই প্রশ্নটি পুরুষদেরই করা হয় এবং তাদের উত্তর থেকে দেখা যায়, বেশিরভাগ সিঙ্গেল পুরুষের মাঝে একটি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। তারা নারীদের মন জয় করার মতো যথেষ্ট আধুনিক হয়ে উঠতে পারেননি।

ইভলুশনারি সাইকোলজিক্যাল সায়েন্স জার্নালে প্রকাশিত হয় এই গবেষণা। গবেষণার লেখক মেনেলাওস অ্যাপোস্তলু ১৩,৪২৯ জন পুরুষকে প্রশ্ন করেন, কেন তারা সিঙ্গেল? এর উত্তরে দেখা যায়, পুরুষরা মূলত ৪৩ টি কারণ ব্যাখ্যা করেন। এর মাঝে রয়েছে অ্যাংজাইটি বা দুশ্চিন্তা, সময়ের অভাব, সিঙ্গেল থাকার প্রতি আগ্রহ, সম্পর্কের প্রতি অনীহা এবং হাল ছেড়ে দেওয়া।  এখানে ক্লিক করে দেখে নিতে পারেন পুরো তালিকাটি।

গবেষণার ফলাফল হিসেবে লেখক ধারণা করেন, সমাজে যেভাবে পরিবর্তন এসেছে, নারীর মন জয় করতে পুরুষের দক্ষতা তার সাথে পাল্লা দিয়ে পরিবর্তিত হয়নি। এ দক্ষতায় যাদের ঘাটতি আছে মূলত তারাই সিঙ্গেল থেকে যান।  লেখক অ্যাপোস্তলু দাবি করেন, অতীতে অনেক পুরুষ জোর করে পছন্দের নারীকে বিয়ে করত, অনেক ক্ষেত্রে পরিবার থেকে আলাপ করে বিয়ে অর্থাৎ অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ দেওয়া হতো। এসব ক্ষেত্রে নারীর মন জয়ে পুরুষের দক্ষতা কাজে আসত না। কিন্তু অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ বা জোর জবরদস্তির দিন এখন আর নেই। এ কারণেই প্রেমিকা খুঁজে পেতে ব্যর্থ হচ্ছেন পুরুষরা।

শুধু তাই নয়, অ্যাপোস্তলু দাবি করেন, বিবর্তনের ধারাতেই পুরুষের মাঝে এমন দক্ষতা গড়ে ওঠেনি। আদিম মানুষরা জোর করেই প্রেমিকা বেছে নিত। এ প্রবণতা আধুনিক মানুষের মাঝেও রয়ে গেছে এবং এর কারণেই পুরুষরা সিঙ্গেল রয়ে যাচ্ছে।  প্রেমিকা পেতে হলে তাদেরকে আধুনিক সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হবে এবং নারীর মন জয় করার জন্য নিজেকে দক্ষ করে তুলতে হবে।

তবে এই গবেষণার কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে। যেমন এতে শুধু পুরুষের মতামত নেওয়া হয়েছে, নারীর নয়। এছাড়া এতে বয়স, এলাকা, সংস্কৃতির কোনো বিভাগ করা হয়নি, ফলে কোন ধরণের মানুষে সিঙ্গেল থাকার পেছনে কারণ কী দেখিয়েছেন, তা বলা যায় না।  গবেষণার ফলাফল হিসেবে এটাই বোঝা যায়, নিজেকে নিয়ে হীনমন্যতায় ভোগেন সিঙ্গেল পুরুষরা।

Shares