আজ শনিবার , ২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাচনে মোশারফ, ফরিদ, আশুরা বিজয়ী গরীবের আশার বাতিঘর হাজী মোশারফ হালুয়াঘাটে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি পুঁততে গিয়ে মৃত্যু-১, আহত-১ জাতীয় ভাবে”স্বপ্নজয়ী মা” নির্বাচিত হলেন জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জের অবিরণ নেছা ৬১০৮ ভোটের ব্যবধানে হামিদ বিজয়ী। শেখ রাসেল ও মনোয়ারা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হালুয়াঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনঃ প্রবীণে প্রবীণে লড়াই এম্বুলেন্সে করে মাদক পাচারকালে ২৪০ বোতল ভারতীয় মদসহ একজন আটক এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার

ময়মনসিংহে যুবলীগনেতা নেতা হত্যা! ধর্মমন্ত্রীর বাড়ি ঘেড়াওয়ের ঘোষনা!

প্রকাশিতঃ ১০:০৩ অপরাহ্ণ | আগস্ট ০৫, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৬৫৫ বার

অনলাইন ডেস্কঃ ময়মনসিংহ নগরীর আকুয়া এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মহানগর যুবলীগ সদস্য সাজ্জাদ আলম শেখ আজাদ ওরফে আজাদ শেখ হত্যার ঘটনায় ৫ দিন অতিবাহিত হলেও মামলা নেয়নি কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশ। এরই প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও মানব্বন্ধন করেছে নিহত আজাদের স্বজনরা। সেই সাথে আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে মামলা রজু করা না হলে নিজেরাই হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন ও ধর্মমন্ত্রীর বাড়ি ঘেড়াও করবে বলে ঘোষনা দিয়েছেন আজাদের পরিবার।

রবিবার (৫ আগস্ট) দুপুরের নগরীর গাঙ্গিনাপাড় মোড়ের প্রধান সড়ক অবরোধ করে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও সনমাবেশে এই ঘোষনা দেয়া হয়েছে।

এসময় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন আজাদের স্ত্রী দিলরুবা আক্তার, বড় ভাই সালাহ উদ্দিন শেখ ও তার কর্মী শাব্বির শেখ প্রমুখ। মানববন্ধন ও সমাবেশে আজাদের স্বজনরা ছাড়াও এলাকাবাসী ও যুবলীগের কর্মীরা অংশ নেন।

আজাদের সস্ত্রী দিলরুবা আক্তার বলেন, থানায় মামলা দিয়েছি। ওই এজাহারে ধর্মমন্ত্রীর ছেলে মোহিত উর রহমান শান্তকে প্রধান আসামী করে ২৫ জনের নাম উল্লেখ্য রয়েছে। এখনো পুলিশ মামলা নেয়নি। মামলা না নিয়ে আমাদের উল্টাপাল্টা কথা বলছেন। এসময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, মন্ত্রীর ছেলে বলে কি পুলিশ মামলা নিবেনা। আমার স্বামীওতো যুবলীগ করতো। সে মহানগর আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ছিল। আমি কি আমার স্বামী হত্যার বিচার পাবোনা?

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি (ইনটেলিজ্যান্স ও কমিউনিটি পুলিশিং) মুশফিকুর রহমান বলেন, আমরা একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তবে অভিযোগটি তদন্ত করা হচ্ছে।

অন্যদিকে মামার বিষয়টি জানতে কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি মাহমুদুল ইসলামকে ফোন করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নাই।

এদিকে আজাদ হত্যার পর থেকেই ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমানের ছেলে মহানগর আ.লীগের সাধারন সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্তকে দায়ী করে আসছে আজাদের স্ত্রী ও স্বজনরা। আজকেও বিক্ষোভ মিছিল ও মানব্বন্ধনে ধর্মমন্ত্রীর ছেলের বিচার চেয়ে শ্লোগান দেয়া হয়।

এ বিষয়ে জানতে ধর্মমন্ত্রী এবং তার ছেলেকে ফোন করা হলেও কেউ ফোন রিসিভ করেন নি। পরে ধর্মমন্ত্রীর ব্যক্তিগত তথ্যকর্মকর্তা বুলবুল আহমদ কে ফোন করা হলে তিনি বলেন আমি এয়ারপোর্টে আছি দেশের বাইরে যাবো। আপনি মন্ত্রী স্যারের পিএস শফিকুর রহমান এবং এপিএস আবু সাঈদের সাথে কথা বলেন। তারা মন্ত্রী স্যারের সাথে কথা বলিয়ে দিবেন । কিন্ত তাদের কেউ ফোন রিসিভ করেন নাই। তাই ধর্মমন্ত্রী এবং তার ছেলের সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি

উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই দুপুরে দলীয় বিরোধের জেরধরে প্রকাশ্যে মহানগর যুবলীগের সদস্য আজাদ শেখকে গুলি,  দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে একই এলাকার যুবলীগের কর্মীরা। আজাদ এক সময় মোহিত উর রহমান শান্তর গ্রুপ করতেন। পরে বনিবনা না হওয়ায় জেলা আ.লীগের সাধারন সম্পাদক এড মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল ও পৌর মেয়র ইকরামুল হক টিটুর গ্রুপে যোগ দেন বলে জানা গেছে।

Shares