আজ শুক্রবার , ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাচনে মোশারফ, ফরিদ, আশুরা বিজয়ী গরীবের আশার বাতিঘর হাজী মোশারফ হালুয়াঘাটে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি পুঁততে গিয়ে মৃত্যু-১, আহত-১ জাতীয় ভাবে”স্বপ্নজয়ী মা” নির্বাচিত হলেন জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জের অবিরণ নেছা ৬১০৮ ভোটের ব্যবধানে হামিদ বিজয়ী। শেখ রাসেল ও মনোয়ারা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হালুয়াঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনঃ প্রবীণে প্রবীণে লড়াই এম্বুলেন্সে করে মাদক পাচারকালে ২৪০ বোতল ভারতীয় মদসহ একজন আটক এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার

ফেইসবুকে ভাইরাল হওয়া গুজব নিয়ে যা বললেন অভিনেত্রী নওশাবা

প্রকাশিতঃ ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ | আগস্ট ০৫, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৪০৮ বার

অনলাইন ডেস্কঃ ভুল তথ্য ছড়ানোর কারণে অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদের ফেসবুক লাইভ নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। শনিবার (৪ আগস্ট) তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটিতে ভিডিও বার্তায় জানান, রাজধানীর জিগাতলায় একজন শিক্ষার্থীর চোখ তুলে ফেলা ও চার শিক্ষার্থীকে মেরে ফেলা হয়েছে। কিন্তু খোঁজ নিয়ে এর কোনও সত্যতা পাওয়া যায়নি।

ফেসবুক লাইভে নওশাবা বলেন, ‘জিগাতলায় আমাদের ছোট ভাইদের (শিক্ষার্থী ইঙ্গিত করে) একজনের চোখ তুলে ফেলা ও চারজনকে মেরে ফেলা হয়েছে। একটু আগে ওদেরকে অ্যাটাক করা হয়েছে। ছাত্রলীগের ছেলেরা সেটা করেছে। প্লিজ-প্লিজ ওদেরকে বাঁচান। তারা জিগাতলায় আছে। আপনারা এখনই রাস্তায় নামবেন ও আপনাদের বাচ্চাদের নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যাবেন, এটা আমার রিকোয়েস্ট। বাচ্চাগুলো নিরাপত্তাহীনতায় আছে। যে পুলিশরা আছেন আপনারা অবশ্যই নিজেদের বাচ্চাদের প্রোটেকশন দেন। আপনারা প্লিজ কিছু একটা করেন। আপনারা সবাই একসাথে হোন। আমি এ দেশের মানুষ, এ দেশের নাগরিক হিসেবে আপনাদের কাছে রিকোয়েস্ট করছি।’

নওশাবার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তিনি নিজের চোখে এসব ঘটনা দেখেননি। অন্য কারও কাছে শুনে ফেসবুকে এসব তথ্য জানিয়েছেন। এ বিষয়ে বাংলা ট্রিবিউনের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি।

প্রশ্ন : আপনি ফেসবুক লাইভে যেসব তথ্য দিয়েছেন, তা কীসের ভিত্তিতে? কী তথ্য ছিল আপনার কাছে?

নওশাবা: আমি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সক্রিয় ছিলাম। সেখানে সত্যিকার অর্থেই যারা স্কুলের শিক্ষার্থী, যাদের সঙ্গে আমি দাঁড়িয়েছি, তাদের সঙ্গে আমার যোগাযোগ ছিল। হামলা হওয়ার পর ওরা আমাকে ফোন করে। ফোন পেয়েই আমি একজন পুলিশকে জানাই। তারপর আমি লাইভে (ফেসবুক) আসি। লাইভে আসার পর তথ্যগুলো শেয়ার করি। কারণ, যত দ্রুত সম্ভব ওদেরকে প্রোটেকশন দেওয়া দরকার।

প্রশ্নঃ আপনি এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন কিনা? খোঁজ নিয়ে এসব ঘটনার কোনও সত্যতা পাওয়া যায়নি।
নওশাবা: আমি অন্তত এতটুকু সত্যতা দিতে পারি, চোখে আঘাত করা হয়েছে। এ ঘটনার সত্যতা আমি দিতে পারি।

প্রশ্ন: আপনি তো চারজনের মৃত্যুর খবর দিয়েছেন।

নওশাবা: হ্যাঁ, মৃত্যুর খবর দিয়েছি। কারণ, আমাকে ফোন করে এ তথ্য দেওয়া হয়েছে।

প্রশ্ন: এক্ষেত্রে নিজের জবাবদিহি কিংবা দায়দায়িত্ব কোথায়?
নওশাবা: ওই মুহূর্তে আপনি যদি আমার জায়গায় থাকতেন… ওই মুহূর্তে আমার কাছে যে তথ্য এসেছে তা জানিয়েছি, যাতে আপনারা যেমন এখন আমাকে ফোন করছেন, আমি এটাই চেয়েছি, মানুষ যেন এ বিষয়ে সতর্ক হয়।’

প্রশ্ন : কিন্তু গুজবের কারণে যে সংঘাত-সংঘর্ষের সৃষ্টি হলো তার দায় কে নেবে?

নওশাবা: আমার কারণে কোনও সংঘাত-সংঘর্ষ সৃষ্টি হয়নি।

প্রশ্ন: কিন্তু আপনি তথ্য ভুল দিয়েছেন…
নওশাবা: আপনি কি নিশ্চিত, আমার দেওয়া তথ্য ভুল?

প্রশ্ন: হাসপাতাল-আওয়ামী লীগ কার্যালয়সহ সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে কথা বলেও মৃত্যুর খবর জানা যায়নি। আপনি কি মনে করেন লাশ গুম হয়েছে?
নওশাবা: না, আমি সেটা মনে করছি না। এতটা রাজনৈতিক জ্ঞান আমার নাই যে লাশ গুম হয়েছে ভাববো।

প্রশ্ন: চারজনের মৃত্যুর খবর যদি সত্যি না হয়, এ কারণে যে সংঘাত-সংঘর্ষ হলো, তার দায় কে নেবে?

নওশাবা: আমার তথ্য যদি ভুল হয়ে থাকে, আমি যার কাছ থেকে শুনেছি, তাকে আমার জিজ্ঞাসা করতে হবে।
* আন্দোলনকারীর মৃত্যু সংবাদের গুজব ছড়ানো নিয়ে যা বললেন নওশাবা

Shares