আজ সোমবার , ৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

ইকোপার্কে বেড়াতে গিয়ে খালু কর্তৃক ভাগ্নী ধর্ষণের শিকার শ্রীবর্দীতে পানিতে ডুবে প্রতিবন্ধী শিশুর মৃত্যু মেয়ের খুনের বিচার চাইলেন বাবা বাউফলে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নালিতাবাড়ীতে বন্য হাতির আক্রমণে কৃষকের মৃত্যু দাশপাড়া ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি আজম, সম্পাদক মজিবর নালিতাবাড়ীর নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর নিখোঁজ শিক্ষার্থী উদ্ধার নালিতাবাড়ীতে গণহত্যা দিবস পালিত দলিল প্রতি অতিরিক্ত ফি ১০ হাজার টাকা। প্রতিবাদে ধোবাউড়ায় সংবাদ সম্মেলন রামচন্দ্রকুড়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণায় বাঁধা: সংঘর্ষ, গাড়ি ভাংচুর, আহত হালুয়াঘাটে গাছের সাথে শত্রুতা হালুয়াঘাটে আরও ২৯ জন ভূমিহীনকে জমিসহ ঘর প্রদান ময়মনসিংহে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা, স্বামী আটক। প্রধান মন্ত্রীর উপহার চান ভাগ্য বিড়ম্বিত বিধবা রেনুবালা! ২৫ বৎসরেও হয়নি বিলকিছের প্রতিবন্ধী ভাতা

একজন শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান ও শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক কাজী নজরুল ইসলাম

প্রকাশিতঃ ৪:৪০ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৫, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৩০৪ বার

স্টাফ রিপোর্টারঃ শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন বরুয়াজানী হাসান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক একেএম কাজী নজরুল ইসলাম। পাশাপাশি শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক হিসেবেও ইতিপূর্বে পুরস্কৃত হয়েছেন বলে জানা গেছে। সুত্রে জানা যায়, প্রধান শিক্ষক কাজী নজরুল ইসলাম গত ২৭ জুন মঙ্গলবার জাতীয় শিক্ষাসপ্তাহ ২০১৮ উপলক্ষে নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার তরফদার সোহেল রহমান শিক্ষাসপ্তাহ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে নালিতাবাড়ী উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান হিসেবে কাজী নজরুল ইসলামের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। জানা যায়, এর আগে ২০১৭ সালেও উক্ত বরুয়াজানী উচ্চ বিদ্যালয় উপজেলায় শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় হিসেবে পুরস্কৃত হন। গতকাল এক সাক্ষাৎকারে উক্ত প্রধান শিক্ষকের সফলতার নেপথ্যে জানতে চাইলে তিনি একজন আদর্শিক ও দায়িত্বশীল প্রধান শিক্ষকের ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন। প্রধান শিক্ষক হিসেবে এ কে এম কাজী নজরুল ইসলাম গত ২০১১ সালের ৫ মে তারিখে দায়িত্ব বুঝে নেন। তিনি জানান, এরপর থেকেই লেগেছে বিদ্যালয়টিতে উন্নয়নের ছোঁয়া। প্রধান শিক্ষক হিসেবেও রয়েছে আলাদা কিছু বৈশিষ্ট্য। তারসাথে কথা বলে জানা যায়, সকাল ৯টায় প্রতিদিন বিদ্যালয়ে আসেন। নিজেই বিদ্যালয়ের সকল কিছু তদারকি করে থাকেন। ভিজিট করেন নিজেই। অনেক সময় নিজেই ময়লা পরীস্কার করে থাকেন। নিয়মিত ক্লাস মনিটরিং করা, বাগান করা, শিক্ষার্থীদের জন্যে খেলাধুলার ব্যবস্থা করা, প্রতিটি জাতীয় প্রোগ্রামে শিক্ষার্থীদের অংশ গ্রহণের ব্যবস্থা করাসহ সকল দায়িত্বগুলো পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পালন করে থাকেন। তিনি জানান, জাতীয়করনের জন্যে ৫ টি প্রতিষ্ঠানের ভিজিট তালিকায় বরুয়াজানী হাসান উচ্চ বিদ্যালয় শীর্ষে রয়েছে। বিদ্যালয়টি ১৯৬৭ সালে স্থাপিত। ভাল পাঠদান, অতুলনীয় ফলাফল, বিদ্যালয়ের ভৌত অবকাঠামো, দক্ষ শিক্ষক মন্ডলীসহ সব মিলিয়ে নজর কেঁড়েছে সকলের। শহরের বাহির এলাকায় একমাত্র সুনাম কুঁড়িয়েছে যা। ৮ শত শিক্ষার্থী। বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শাখা নিয়ে ত্রিধারায় চলে শিক্ষা কার্যক্রম। গত জে এস সিতে ৯৪.৭৭%, এসএসসিতে ৯৭.৮% ফলাফল অর্জন করে। এ+ ৯ জন, ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি ৩ জন। অন্যান্য বছরের ফলাফলও ভালো। প্রধান শিক্ষক জানান, জাতীয়করনের জন্যে একমাত্র দাবীদার এই বিদ্যালয়টির।###

Shares