আজ শুক্রবার , ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |

শিরোনাম

নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাচনে মোশারফ, ফরিদ, আশুরা বিজয়ী গরীবের আশার বাতিঘর হাজী মোশারফ হালুয়াঘাটে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি পুঁততে গিয়ে মৃত্যু-১, আহত-১ জাতীয় ভাবে”স্বপ্নজয়ী মা” নির্বাচিত হলেন জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জের অবিরণ নেছা ৬১০৮ ভোটের ব্যবধানে হামিদ বিজয়ী। শেখ রাসেল ও মনোয়ারা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হালুয়াঘাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনঃ প্রবীণে প্রবীণে লড়াই এম্বুলেন্সে করে মাদক পাচারকালে ২৪০ বোতল ভারতীয় মদসহ একজন আটক এমপি মাহমুদুল হক সায়েমকে সি.আই.পি শামিমের সংবর্ধনা হালুয়াঘাটে ঈদে বাড়ি ফেরার পথে লাশ হল স্বামীসহ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী হালুয়াঘাটের স্থলবন্দর দিয়ে ২৭টি পণ্যের আমদানী রপ্তানীর পরিকল্পনা-এমপি সায়েম হালুয়াঘাটে ২৭ হাজার দুস্থ অসহায় পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ১৩ বছর পর পদত্যাগ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হালুয়াঘাটে ফেইসবুক গ্রুপে কোরআন তেলাওয়াত ও ইসলামী সংগীত প্রতিযোগিতা। পুরস্কার বিতরণ ‘কৃষ্ণনগরের কৃষ্ণকেশীর ‘বেহিসেবি রঙ.. হিমাদ্রিশেখর সরকার হালুয়াঘাট থেকে ফুলপুর পর্যন্ত চার লেনের রাস্তা নির্মাণসহ সড়ানো হচ্ছে অস্থায়ী বাস কাউন্টার

নব্বই-উর্ধ্ব বৃদ্ধকে ইট দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত

প্রকাশিতঃ ১২:৫৬ অপরাহ্ণ | জুলাই ১১, ২০১৮ । এই নিউজটি পড়া হয়েছেঃ ৪০৪ বার

সীমান্তবার্তা ডেস্কঃ সবে ৪ঠা জুলাই উপলক্ষ্যে আতশবাজি শুরু হয়েছে। ঠিক তখনই এরিক মেন্ডোজা আবিষ্কার করলেন তার ৯১ বছর বয়সী দাদা ঘরে নেই। তিনি ক্যালিফোর্নিয়ার বাসিন্দা। মেন্ডোজা ভাবলেন, দাদা রোডলফো রড্রিগেজ হয়তো নিজের প্রাত্যাহিক হাঁটায় বের হয়েছেন। এজন্য দাদাকে খুঁজতে তিনি নিজের এলাকার আশেপাশে হাঁটতে লাগলেন। হঠাৎ দেখতে পেলেন সড়কের ধার ঘেঁষে রক্তের ছোপ।

মেন্ডোজা বলেন, তার দাদাকে কেউ একজন ইট দিয়ে মেরে রক্তাক্ত করেছে। তার চোখের পাশের অস্থি ভেঙ্গে গেছে। ভেঙ্গে গেছে দুই পাঁজর! আর ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছেন মিসবেল বরজাস নামে এক ব্যক্তি। ৯১ বছর বয়সী এক বৃদ্ধকে কেউ এত নিষ্ঠুরভাবে মারলো কেন? তার উত্তরটা আরও ভয়াবহ।
ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়, বরজাস নামে ওই প্রত্যক্ষদর্শী সন্ধ্যা সাতটার দিকে উইলোব্রুকে গাড়ি দাঁড় করিয়ে রেখেছিলেন। তিনি জানান, রোডলফো রড্রিগেজ ফুটপাত ধরে হাঁটতে গিয়ে ভুলবশত এক মেয়ের সঙ্গে ধাক্কা খান। বরজাস দেখতে পেলেন, এরপর ওই তরুণীর কৃষ্ণাঙ্গ মা বৃদ্ধ রড্রিগেজকে মাটিতে ধাক্কা মেরে ফেলে দেন। এরপর একটি ইট নিয়ে তার মুখে সজোরে মারতে মারতে চিৎকার করছিলেন, ‘তোমার দেশে ফিরে যাও!’
প্রসঙ্গত, রড্রিগেজ লাতিন বংশোদ্ভূত। তবে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী বাসিন্দা।
বরজাস বলেন, ‘আমি বৃদ্ধকে সাহায্য করতে গিয়েছিলাম, তবে ওই মহিলা বললো, আমি যদি সেখানে যাই তাহলে সে আমার গাড়িতেও একই ইট দিয়ে আঘাত করবে।’ অগত্যা বরজাস ওই নারীর ছবি তুললেন আর অ্যাম্বুলেন্সে ফোন দিলেন।
তবে ওই বৃদ্ধকে বেশ কয়েক মিনিট ধরে মারলেন ওই মহিলা। পাশ ঘেঁষে থাকা একদল যুবক অভিযোগ করলো, রড্রিগেজ নাকি ছোট মেয়েটিকে নিয়ে যেতে চাচ্ছিলেন! তারাও রড্রিগেজকে লাথি দিল। তখন তিনি মুখ থুবড়ে পড়ে ছিলেন। ওই লোকগুলো চলে যাওয়ার পর, বরজাস বৃদ্ধের সঙ্গে দাঁড়িয়ে ছিলেন অ্যাম্বুলেন্স আসা পর্যন্ত।
পরে রাতে এসে মেন্ডোজা জানতে পারেন তার দাদার কী হয়েছে। তিনি বলেন, ‘কেউ আমার দাদাকে মারতে পারে এটা ভেবে আমি স্তম্ভিত! তিনি কার কী ক্ষতি করতে পারেন? ৯১ বছর বয়স তার!’
সম্প্রতি, মার্কিন বিচার বিভাগ ক্যালিফোর্নিয়ায় অপরাধ প্রবণতা নিয়ে যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, তাতে দখা গেছে, লাতিন ও হিসপ্যানিকদের ওপর আক্রমণের হার ৫০ শতাংশ বেড়েছে। এসবের অনেকগুলোই বর্ণবাদী আক্রমণ। স্থানীয় পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত করছে। তবে একজন অশীতিপর বৃদ্ধের ওপর এই আক্রমণ আমেরিকায় বেশ আলোড়ন তুলেছে।

Shares